৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোনা জিততে তেমন ঘাম ঝরাতে হল না মেরি কমকে। ইন্দোনেশিয়ার লাবুয়ান বাজোতে প্রেসিডেন্টস কাপ বক্সিংয়ে ৫১ কেজির ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার এপ্রিল ফ্রাঙ্কসকে হারালেন ৫-০-তে। সেপ্টেম্বরে রাশিয়া বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপ। সেখানে ভাল ফলের উপর নির্ভর করছে ২০২০ টোকিও অলিম্পিকের মূলপর্বের ছাড়পত্র পাওয়া। স্বভাবতই তার আগে মেরির এই ফর্ম উৎসাহজনক। মে মাসে ইন্ডিয়া ওপেন বক্সিংয়ে সোনা জিতেছিলেন মেরি। কিন্তু, এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে নামেননি স্রেফ অলিম্পিকের প্রস্তুতি নেবেন বলে। রবিবার প্রেসিডেন্টস কাপে সোনা জয় তারই অঙ্গ বলে সবাই মনে করছেন।

[আরও পড়ুন: শান্তির বার্তা! পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে যাচ্ছে ভারতীয় টেনিস দল]

সোনা জেতার পর টুইটারে মেরি জানালেন, “প্রেসিডেন্টস কাপ বক্সিংয়ের এই সোনা আমার এবং আমার দেশের জন্য। জয়ের অর্থ তুমি আরও দূর এগোতে চাও, আরও পরিশ্রম করতে চাও বাকিদের থেকে আরও বেশি করে চেষ্টা করতে চাও। আমি আমার কোচ এবং সাপোর্ট স্টাফদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের আগে প্রেসিডেন্টস কাপ বক্সিংয়ে জেতার অর্থ বেশ ইঙ্গিতবহ। এখানে বিশ্বের সেরা তারকারা লড়াইয়ে নামেন। সেখানেই মেরির অনায়াস জয় প্রমাণ করে তিনি তৈরি। বক্সিংয়ের যে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য মেরির এত প্রস্তুতি, সেটা হবে রাশিয়ার ইকাতেরিনবার্গে, ৭-২১ সেপ্টেম্বর।

[আরও পড়ুন: হিমা দাসকে অভিনন্দন জানাতে গিয়ে এ কী বলে বসলেন সাধগুরু!]

মেরি কমের পাশাপাশি ৬০ বিভাগে সোনা জিতেছেন সিমরনজিৎ কৌর। এর ফলে এই প্রেসিডেন্স কাপ বক্সিং চ‌্যাম্পিয়নশিপ থেকে ভারত মোট ৯টি পদক পেল। যার মধ‌্যে সাতটি সোনা ও দু’টি রুপো। একই সঙ্গে টুর্নামেন্টের সেরা দলের সম্মানও পেল মেরি কমের ভারতীয় দল। ৫৪ কেজি বিভাগে সোনা জিতলেন যমুনা বোরো, ৪৮ কেজিতে সোনা পেলেন মনিকা। সব মিলিয়ে অলরাউন্ড পারফরম‌্যান্স ভারতের।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং