৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দীর্ঘদিনের সফল কেরিয়ারের স্বীকৃতি পেলেন এম সি মেরি কম। এশিয়ার সেরা মহিলা অ্যাথলিটের খেতাবে ভূষিত হলেন মণিপুরী বক্সার। মেরি কমকে এশিয়ার সেরা অ্যাথলিট নির্বাচিত করেছে এশিয়ান স্পোর্টস প্রেস ইউনিয়ন। বুধবার মালয়েশিয়ার সেলেনকোর শহরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। যদিও, পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মেরি কম উপস্থিত ছিলেন না। তাঁর হয়ে পুরস্কার তুলে নেন ক্রীড়া সাংবাদিক সুবোধ মালা বড়ুয়া।

[আরও পড়ুন: জাতীয় ক্রীড়া দিবসে ‘ফিট ইন্ডিয়া মুভমেন্ট’ শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি]

এশিয়ান স্পোর্টস প্রেস ইউনিয়ন ক্রীড়া সাংবাদিকদের একটি সংস্থা। ১৯৭৮ সালে এই সংস্থাটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ভারত-সহ মোট ৩০টি দেশের প্রতিনিধি এই সংস্থাটির সঙ্গে যুক্ত। এবছরই প্রথম এশিয়ার সেরা ক্রীড়াবিদদের পুরস্কার দেওয়ার এই প্রক্রিয়াটি শুরু করেছে সংস্থাটি। মণিপুরী বক্সার ছাড়াও সেরা পুরুষ ক্রীড়াবিদ নির্বাচিত হয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়া তথা টটেনহ্যামের ফুটবলার সন হিয়ুং মিন। সেরা পুরুষ দল নির্বাচিত হয়েছে কাতার ফুটবল দল। সেরা মহিলা দল নির্বাচিত হয়েছে জাপানের মহিলা ফুটবল দল।

[আরও পড়ুন: বিদায় আসন্ন? দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও বাদ পড়ছেন ধোনি!]

দীর্ঘ বক্সিং কেরিয়ারে হেন কোনও ইভেন্ট নেই, যাতে মেরি কম পদক জেতেননি। ৬ বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন মেরি কম। দেশের প্রতিনিধিত্ব করে জিতেছেন অলিম্পিক ব্রোঞ্জ মেডেল। ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসেও সোনা জেতেন তিনি। এশিয়ান বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপেও রয়েছে চারটি সোনা। চলতি বছরও ইন্দোনেশিয়ায় প্রেসিডেন্ট কাপের ৫১ কেজি বিভাগে সোনা জিতেছেন মেরি কম। দেশেও একাধিক ক্রীড়া সম্মানে সম্মানিত হয়েছেন। পেয়েছেন দেশের সর্বোচ্চ ক্রীড়া সম্মান ‘রাজীব গান্ধী খেলরত্ন’ পুরস্কার। ২০০৩ সালে তিনি বক্সিং এর জন্য ‘অর্জুন পুরষ্কার’ পান। ২০০৬ সালে ‘পদ্মশ্রী’ এবং ২০০৯ সালে ‘রাজীব গান্ধী খেলরত্ন’ পুরষ্কার পান। ২০১৩ সালে ‘পদ্মভূষণ’ সম্মান দেওয়া হয় ৬ বারের বিশ্বজয়ী বক্সার মেরি কমকে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং