৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘এটা সময়ের প্রয়োজন’। জাতীয় ক্রীড়া দিবসে ‘ফিট ইন্ডিয়া মুভমেন্ট’-এর সূচনা করে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে এক জাঁকজমক অনুষ্ঠান করে শারীরিক সক্ষমতা সংক্রান্ত নতুন কর্মসূচিটির সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেণ রিজিজুও।

[আরও পড়ুন: প্রথমবার গ্র্যান্ড স্ল্যামে নেমেই চমক, ফেডেরারকে কড়া টক্কর হরিয়ানার সুমিতের]

মূলত দেশবাসীর শারীরিক সুস্থতা এবং ফিটনেসের দিকে নজর দিতেই নতুন এই কর্মসূচি নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার সকালে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী স্টেডিয়ামে জাতীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দেওয়ার মাধ্যমে প্রকল্পের সূচনা করেন নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির দৌলতে আমাদের জীবনযাপনের ধরন বদলে গিয়েছে। শারীরিক সক্ষমতা চিরদিনই আমাদের সমাজের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ ছিল। কিন্তু, এখন পরিস্থিতি বদলাচ্ছে। কয়েক দশেক আগে, একজন সাধারণ মানুষ ৮ থেকে ১০ কিলোমিটার হাঁটতেন। কিন্তু প্রযুক্তির আগমনের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের শারীরিক কসরতের পরিমাণ কমছে। আমরা এখন অনেক কম হাঁটাহাঁটি করি।ফিটনেস হল জিরো ইনভেস্টমেন্টে আনলিমিটেড রিটার্ন। একমাত্র স্বাস্থ্যবান দেশই শক্তিশালী দেশ হতে পারে। ” অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেণ রিজিজু এবং এবছরের জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার জয়ীরা। ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেণ রিজিজু হকির জাদুকর ধ্যানচাঁদকে শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, “আমরা এই কর্মসূচিকে নতুন উচ্চতায় পৌঁছে দেব। আমি খুব খুশি, যে এই কর্মসূচি হকির জাদুকর মেজর ধ্যানচাঁদের জন্মদিবসে শুরু হল।”

[আরও পড়ুন: সিন্ধুর জৌলুসে ম্লান প্যারা-চ্যাম্পিয়নশিপে জোড়া সোনাজয়ী এই ভারতীয়, চেনেন?]

মূলত, দেশবাসীকে শারীরিক সুস্থতা এবং সক্ষমতা সম্পর্কে সচেতন করা এবং দেশের বিভিন্ন প্রান্তে খেলাধূলার উপযুক্ত পরিকাঠামো তৈরির লক্ষ্যে এই ‘ফিট ইন্ডিয়া মুভমেন্ট’ চালু করা হল। কেন্দ্রের বেশ কয়েকটি মন্ত্রক এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত। ক্রীড়ামন্ত্রকের পাশাপাশি মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক, পঞ্চায়েতি রাজ মন্ত্রক এবং গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত। এই প্রকল্পের অধীনে যেখানে খেলাধূলার পরিকাঠামোর অভাব সেখানে পরিকাঠামো তৈরি করা হবে। প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে খেলাধূলা এবং ফিটনেসের উপর অতিরিক্ত জোর দেওয়া হবে। স্কুলগুলিকে আলাদা ফিটনেস প্ল্যান তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দেশের সেলিব্রিটি এবং ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের দিয়ে সচেতনতা শিবির এবং ফিটনেসের বিজ্ঞাপন করানো হবে। এই কাজে সরকারকে সাহায্য করবেন পি ভি সিন্ধু, হিমা দাস, বজরং পূনিয়া, সাক্ষী মালিকরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং