৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সদ্য শৈশব থেকে কৈশোরে পা রাখা দুই স্কুলপড়ুয়া। পরনে নীল-সাদা রঙের পোশাক। পিঠে বইয়ের ব্যাগ। প্রাণশক্তিতে ভরা দু’জনে। আচমকা কিশোর দিল এক দৌড়। তারপরই লাফ। শূন্যে পাক খেয়ে দিব্যি মাটিতে পা রাখল সে। তাকে দেখে উদ্বুদ্ধ স্কুলপড়ুয়া কিশোরীও। একইভাবে ডিগবাজি দিল সে। পরপর দু’টি ডিগবাজি দিয়ে মাটিতে পা রাখল সে। এতক্ষণ পর্যন্ত যা পড়লেন তা কিন্তু কোনও সিনেমার দৃশ্য নয়। বাস্তবে এমনই শারীরিক কসরত করে সকলকে তাক লাগিয়ে দিল দুই পড়ুয়া।

[আরও পড়ুন: নকল পায়ে বিশ্বজয়, সিন্ধুর সাফল্যের দিন সোনা জিতেও অন্ধকারে মানসী]

মাত্র ১৬ সেকেন্ডের এই ভিডিও নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হতে বেশি সময় লাগেনি। টুইটারে পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ দেখে ফেলেছেন এই ভিডিও। ছেলে-মেয়ে দু’টির কীর্তি দেখে মুগ্ধ নেটিজেনরা। ধন্য ধন্য করছেন সকলেই। তবে ভিডিওটি ঠিক কোথাকার, তা আপাত ভাবে বোঝা যায়নি। অলিম্পিকে পাঁচবার সোনাজয়ী জিমন্যাস্ট নাদিয়া কোমানিচিও প্রশংসা করেছেন তাদের। তিনি টুইটারে ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘দুর্দান্ত’। পরে কমেন্ট সেকশমেও ওই দুজনের প্রশংসা করেছেন তাদের।

নাদিয়া কোমানিচির পোস্ট করা সেই ভিডিও আবার রিটুইট করেছেন কিরেণ রিজিজু। তিনি লিখেছেন, “নাদিয়ার মতো ব্যক্তিত্বের এই ভিডিও শেয়ার করা অত্যন্ত গর্বের। বাচ্চাগুলির পরিচয় জানতে খুব ইচ্ছে করছে আমার।”



নাদিয়া এবং কিরেণ রিজিজুর মতো অন্যান্য নেটিজেনরা ওই স্কুলপড়ুয়াদের প্রশংসা করেছেন। নেটদুনিয়ায় হিরো হয়ে গিয়েছে দু’জনে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং