BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ডোপ কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়ে পাঁচ মাস নির্বাসিত পাঠান, কবে শেষ শাস্তির মেয়াদ?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 9, 2018 8:51 am|    Updated: January 9, 2018 9:09 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডোপ কেলেঙ্কারির ছায়া পড়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটের আকাশে। পাঁচ মাসের জন্য ইউসুফ পাঠানকে নির্বাসিত করে বিসিসিআই। চলতি মাসেই নির্বাসন কাটিয়ে মাঠে ফেরার সুযোগ পাবেন তিনি।

ভারতীয় দলে আর সুযোগ হয় না তাঁর। তাঁর ব্যাটিং দেখতে ক্রিকেটপ্রেমীরা আইপিএল-এর অপেক্ষায় থাকেন। কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সি গায়ে বাইশ গজে ঝড় তোলের মাঝেমধ্যেই। সেই ইউসুফ পাঠানের নাম জড়ায় ডোপ কেলেঙ্কারিতে। যার জেরে গত বছর ১৫ আগস্ট পাঁচমাসের জন্য নির্বাসিত করা হয় তাঁকে। মঙ্গলবার সে খবর প্রকাশ্যে আসে। আগামী ১৪ জানুয়ারি তাঁর নির্বাসনের মেয়াদ শেষ হবে।

[লাস্ট বয় চার্চিলের কাছে আটকে পয়েন্ট নষ্ট করল ইস্টবেঙ্গল]

গত বছর মার্চ মাসে দিল্লিতে একটি ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের জন্য ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের ডোপবিরোধী শাখার তরফে ক্রিকেটারদের ডোপ পরীক্ষা করা হয়েছিল। মূত্রের নমুনা পরীক্ষা করা হয় বরোদা ক্রিকেটার পাঠানেরও। সেখানেই তাঁর দেহ থেকে নিষিদ্ধ পদার্থ টারবুটালিন পাওয়া গিয়েছিল। বিশ্ব ডোপবিরোধী সংস্থা ওয়াডার নিয়ম অনুযায়ী খেলার সময় অথবা মাঠের বাইরে কোনও খেলোয়াড় এই পদার্থ সেবন করতে পারেন না। সাধারণত কফ সিরাপে এই পদার্থ ব্যবহার করা হয়। আর সেই কারণেই তাঁকে নির্বাসিত করা হয়।

বিসিসিআই-এর তরফে জানানো হয়েছিল, গত বছর ২৭ অক্টোবর বোর্ডের ডোপবিরোধী নিয়মের (ADR) ২.১ ধারার অধীনে অ্যান্টি-ডোপিং রুল ভায়োলেশন (ADRV) কমিশন তাঁকে সাসপেন্ড করে। তবে পাঠান জানিয়েছিলেন, ভুলবশতই এই পদার্থ সেবন করেছেন তিনি। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি যে ওষুধটি চেয়েছিলেন, তার বদলে তাঁর অন্য ওষুধ দেওয়া হয়েছিল। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি। তাঁর ব্যাখ্যা মেনে নিয়েই স্বল্প মেয়াদের শাস্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বোর্ড। তবে পাঠান-ভক্তদের জন্য সুখবর যে আসন্ন আইপিএল-এ খেলতে আর কোনও বাধা থাকবে না তাঁর।

[বঙ্গ ক্রিকেটে নয়া চমক, আইপিএল-এর ধাঁচে লিগের ভাবনা সৌরভের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement