৪ আশ্বিন  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সাংবাদিক দানিশের পর আফগানিস্তানে খুন কৌতুকশিল্পী, তালিবানি আতঙ্কে কাঁপছে কান্দাহার

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 29, 2021 9:17 am|    Updated: August 24, 2021 11:26 am

Afghan comedian brutally murdered by Taliban terrorists | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতীয় চিত্র সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকির পর এবার জনপ্রিয় কৌতুকশিল্পী নজর মহম্মদ ওরফে খাসা জোয়ানকে খুন করল তালিবান (Taliban) জঙ্গিরা। আফগানিস্তানের কান্দাহার প্রদেশের এই পৈশাচিক ঘটনায় রীতিমতো কেঁপে ওঠেছে গোটা বিশ্ব।

[আরও পড়ুন: চিনা বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক তালিবানের, উইঘুর বিচ্ছিন্নতাবাদ নিয়ে উদ্বিগ্ন বেজিং]

জানা গিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে কান্দাহারে নিজের বাড়ি থেকে কমেডিয়ান তথা আফগান পুলিশের প্রাক্তন কর্মী নজর মহম্মদকে তুলে নিয়ে যায় সন্ত্রাসবাদীরা। গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়ার সময়েই প্রচণ্ড মারধর করা হয় তাঁকে। তার পরে গাড়ি থেকে নামিয়ে, গাছে বেঁধে লোকটির গলা কেটে ফেলে জঙ্গিরা। এই ঘটনার নেপথ্যে তালিবানের হাত রয়েছে বলে দাবি করেছে নিহত শিল্পীর পরিবার। এই ভয়াবহ ভিডিও টুইটারে পোস্ট করে আফগানিস্তানে কর্মরত এক বিদেশি সাংবাদিক দাবি করেছেন, এই হত্যাকাণ্ড তালিবানের কাজ। তাজুদেন সারুশ নামে সাংবাদিকের পোস্ট করা ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরে তালিবান অবশ্য বিবৃতি দিয়ে দাবি করেছে, নজরের হত্যার পিছনে তাদের কোনও হাত নেই। যদিও জঙ্গিগোষ্ঠিটির দাবি মিথ্যা বলেই মত অধিকাংশের। কারণ এর আগে ১৬ জুলাই ভোররাতে কান্দাহারে আফগান-তালিবান সংঘর্ষে নিহত হন তরুণ ভারতীয় সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি। আফগান সেনাবাহিনী সূত্রে জানানো হয়েছিল, দানিশের দেহ নিজেদের হেফাজতে নিয়ে বিকৃত করেছিল তালিবান।

উল্লেখ্য, কান্দাহার শহরের অনেকটাই দক্ষণ করেছে তালিবান জঙ্গিরা। তপবে পালটা হামলা চালাচ্ছে আফগান ফৌজ। সরকারি কমান্ডো বাহিনী ময়দান কামড়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু দখল করা এলাকায় লুটপাট, তোলা আদায়, কমবয়সি ছেলেদের নিজেদের বাহিনীতে জোর করে যোগ দেওয়ানো ও মেয়েদের ধরে নিয়ে যাওয়ার মতো অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে তালিবান। ফলে কান্দাহার ছেড়ে কাবুলের উদ্দেশে পালিয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। সম্প্রতি কান্দাহারের স্পিন বোলদাকে এক হামলায় নিহত হয়েছে একশোরও বেশি সাধরণ মানুষ। ওই ঘটনায় তালিবানের দিকেই আঙুল তুলেছে আফগান প্রশাসন। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করা হয়েছে আফগান প্রশাসনের পক্ষ থেকে। ওই শহরে লুটপাট চালাচ্ছে তালিবান জঙ্গিরা। ঘরবাড়ি ধ্বংস করা হয়েছে। এমনকী সরকারি দপ্তরগুলিতে ভেঙে ফেলা হচ্ছে। সব মিলিয়ে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ফলে প্রবল গৃহযুদ্ধ শুরু হয়েছে আফগানিস্তানে।

[আরও পড়ুন: Pakistan থেকে সরে আফগানিস্তানে ঘাঁটি গেড়েছে লস্কর, ভারতকে জানাল কাবুল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

×