BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই আফগান সেনাঘাঁটিতে তালিবান হামলা, মৃত কমপক্ষে ২৭

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 21, 2020 2:28 pm|    Updated: March 21, 2020 2:33 pm

An Images

ঘটনাস্থলের ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমেরিকার সঙ্গে তালিবানদের শান্তি চুক্তির পরেই জল্পনা শুরু হয়েছিল। এর ফলে আদৌও আফগানিস্তানের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে, না মার্কিন সেনা সরলেই তালিবানদের মুখোশ খুলে যাবে তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন অনেকে। করোনা আতঙ্কের মধ্যেই তা সত্যি হল। আফগানিস্তানের একটি সেনাঘাঁটিতে হামলা চালিয়ে কমপক্ষে ২৭ জন সেনাকে হত্যা করল তালিবান জঙ্গিরা। গত মাসে শান্তি চুক্তি হওয়ার পর এটাই সবথেকে বড় হিংসার ঘটনা ঘটল। যদিও এখন পর্যন্ত তালিবানদের তরফে এই ঘটনার দায় স্বীকার করা হয়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আফগানিস্তানের দক্ষিণ প্রান্তে জাবুল(Zabul) প্রদেশের রাজধানী কালাতে সেনা ও পুলিশের যৌথ সদর দপ্তর হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সেখানে আচমকা হামলা চালায় তালিবানরা। ঘুমন্ত সেনা ও পুলিশ কর্মীদের গুলি চালিয়ে খুন করতে থাকে। প্রথমে হকচকিয়ে গেলেও পরে রুখে দাঁড়ান নিরাপত্তারক্ষীরা। এরপরই দুপক্ষের মধ্যে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত গুলির লড়াই হয়। এর জেরে ১৪ জন আফগান সেনা ও ১০ জন পুলিশকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন আরও চারজন। পরে খবর পেয়ে আরও নিরাপত্তারক্ষী ঘটনাস্থলে গেলে জঙ্গিরা ওই ঘাঁটি থেকে প্রচুর অস্ত্র ও গুলি নিয়ে পালিয়ে যায়।

[আরও পড়ুন: ভেনিসে উলটপুরাণ! করোনার থাবায় বন্ধ গন্ডোলা, জলে ফিরছে মাছের ঝাঁক ]

 

এপ্রসঙ্গে জাবুল প্রদেশের গর্ভনর রাহামতুল্লাহ ইয়ারমাল বলেন, ‘বুধবারই দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আসাদুল্লাহ খালিদ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে তালিবানদের সঙ্গে অস্ত্রবিরতি চুক্তি করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু, ওরা যে শোধরানোর বান্দা নয় তা ফের প্রমাণ হল। ওনার প্রস্তাব দেওয়ার একদিনের মধ্যে সেনা ও পুলিশের যৌথ ঘাঁটিতে হামলা চালাল ওরা। আমার মনে হয় এই ঘটনার পর তালিবানদের বিরুদ্ধে আরও কড়া ব্যবস্থা নেওয়া উচিত সেনাবাহিনীর।’

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্ক থরহরিকম্প ইউরোপ, ইটালিতে মৃতের সংখ্যা ছাপিয়ে গেল চিনকে]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শান্তি চুক্তির পর আফগানিস্তানের সরকারের কাছে ল তাদের চার হাজার জঙ্গিকে ছেড়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছিল তালিবান। কিন্তু, সরকার দেড় হাজার জনকে ছাড়তে সম্মত হয়। বিষয়টি নিয়ে টানাপোড়েনের মাঝেই হামলা চালাল তালিবানরা। পাকিস্তানের মদতেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement