৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনার সঙ্গে যুদ্ধে হার, ব্রিটেনে মারণ ভাইরাসের বলি ভারতীয় বংশোদ্ভূত চিকিৎসক

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 8, 2020 9:37 am|    Updated: April 8, 2020 12:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল ভারতীয় চিকিৎসকের। জিতেন্দ্র কুমার রাঠোর নামে ওই চিকিৎসক বহু বছর ধরে ন্যাশনাল হেল্থ সার্ভিসে (NHS) চাকরি করতেন। সোমবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি।

ইউরোপজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা। ইতালি, স্পেন তো বটেই, মহাদেশের অন্য দেশগুলিতেও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বাদ নেই ব্রিটেনও। সেখানেও মারণ থাবা বসিয়েছে করোনো ভাইরাস। ইতিমধ্যেই সেখানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজারেরও বেশি মানুষের। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থাবা বসিয়েছিল জিতেন্দ্রের শরীরেও। ইউনিভার্সিটি অফ ওয়েলসের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। তাঁর কর্মক্ষেত্র ছিল ন্যাশনাল হেল্থ সার্ভিস (NHS)। জিতেন্দ্রর মৃত্যুতে শোকাহত সহকর্মীরা।

[ আরও পড়ুন: WHO চিনের তাবেদার! আর্থিক সাহায্য বন্ধের হুমকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ]

কার্ডিফ এবং ভ্যালি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য বোর্ডের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, “ইউনিভার্সিটি অফ ওয়েলসের হাসপাতালের কার্ডিও-থোরাসিক সার্জারির সহযোগী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার জিতেন্দ্র রাঠোর সোমবার প্রয়াত হয়েছেন। সোয়াব পরীক্ষায় তাঁর শরীরে COVID-19-এর অস্তিত্ব মেলে। তিনি আমাদের জেনারেল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভরতি ছিলেন। জিতু গত শতাব্দীর নয়ের দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে কার্ডিও-থোরাসিক সার্জারি বিভাগে কাজ করেছিলেন। সার্জেন হিসেবে তিনি ছিলেন অসাধারণ। রোগীদের গভীরভাবে যত্ন নিতেন তিনি। তাঁর কাজের জন্য সবাই তাঁকে পছন্দ ও শ্রদ্ধা করত। মানুষ হিসেবেও তিনি ছিলেন অসাধারণ।”

ব্রিটেনে স্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে থাকতেন জিতেন্দ্র রাঠোর। বম্বে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিবিএস করার পর তিনি পাড়ি দিয়েছিলেন ব্রিটেনে। ব্রিটিশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (BMA) চেয়ারম্যান ড: চাঁদ নাগপাল জানান, করোন ভাইরাস রোগীদের চিকিৎসা করার জন্য এনএইচএসের কর্মচারীদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ভারতীয় চিকিৎসক এবং নার্স রয়েছেন। তাঁরা যে করোনা যুদ্ধে সামনে থেকে লড়াই করছেন, ড: রাঠোরের মৃত্যুর সেই ছবিই তুলে ধরে। ব্রিটেনের প্রায় ৪০ শতাংশ পর্যন্ত চিকিৎসক কৃষ্ণাঙ্গ এশিয়ান ও সংখ্যালঘু (BAME- Black Asian and Minority Ethnic)। করোনা সংক্রমণে এখনও পর্যন্ত ব্রিটেনে যে চারজন ডাক্তারের মৃত্যু হয়েছে তাঁরাও BAME ছিলেন।

[ আরও পড়ুন: ১৩০০ জন নাগরিককে ভারত থেকে ফেরাতে বিশেষ বিমান পাঠাল আমেরিকা ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement