BREAKING NEWS

১৯  মাঘ  ১৪২৯  শনিবার ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘ভারত-চিন সম্পর্কে নাক গলাবেন না’, মার্কিন আধিকারিককে হুঁশিয়ারি বেজিংয়ের

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: November 30, 2022 1:24 pm|    Updated: November 30, 2022 1:24 pm

China asked USA officials not to interfere in their relation with India | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের সঙ্গে চিনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক (India-China Relation) নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন বেজিংয়ের আধিকারিক। আমেরিকার সংসদে একটি রিপোর্টে এই দাবি করেছে মার্কিন (USA) প্রতিরক্ষার সদর দপ্তর পেন্টাগন। এই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, গালওয়ান সংঘর্ষের পরে বারবার সীমান্তে শান্তি বজায় রাখার দাবি করেছে চিন। কিন্তু সেই কথা বাস্তবায়িত হয়নি। ভারতের সঙ্গে আমেরিকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নতি হোক, তাও চায়নি শি জিনপিংয়ের প্রশাসন। সেই জন্যই মার্কিন কর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল, চিনের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কে আমেরিকা যেন মাথা না গলায়।

মঙ্গলবার মার্কিন সংসদে একটি রিপোর্ট পেশ করেছে পেন্টাগন। সেখানে বলা হয়েছে, “ভারতের সঙ্গে সীমান্ত এলাকায় বিবাদ কমাতে উদ্যোগ দেখাত চিন। কারণ ভারতের সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্কে ধারাবাহিকভাবে উন্নতি হয়েছিল। সেই বিষয়টি পছন্দ হয়নি জিনপিংয়ের। সেই জন্য বারবার মার্কিন আধিকারিকদের বলা হয়েছিল, ভারতের সঙ্গে চিনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে তাঁরা যেন হস্তক্ষেপ না করেন। সেই সঙ্গে বলা হয়েছিল, সীমান্ত সমস্যা মিটিয়ে নিতে খুবই আগ্রহী বেজিং।”

[আরও পড়ুন: জিনপিং প্রশাসনের রক্তচক্ষুতে ছেড়েছেন চিন, কোন দেশে সন্ধান মিলল জ্যাক মা’র?]

গালওয়ান সংঘর্ষ ও তারপরে দুই দেশের সেনা মোতায়েনের প্রসঙ্গও উল্লেখ করা হয়েছে এই রিপোর্টে। মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তরের মতে, ভারতের সঙ্গে বিবাদ মিটিয়ে নেওয়ার বিষয়ে বেশি উদ্যোগী হিসাবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিল চিন। আমেরিকার চোখে শান্তপ্রিয় দেশ হিসাবে নিজেদের তুলে ধরতে চেয়েছিলেন জিনপিং। তবে রিপোর্টে স্পষ্টই বলা হয়েছে, একাধিকবার সেনা সরিয়ে নেওয়ার কথা বললেও আসলে কোনও লাভ হয়নি। সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে রাজি হয়নি চিন।

২০২০ সালের গালওয়ান সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়। তারপর থেকেই সীমান্তে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। মার্কিন রিপোর্টে বলা হয়েছে, “এই সময়ে চিনের তরফে অভিযোগ করা হয়েছিল, তাদের ভূখণ্ডে ঢুকে এসে নানা রকমের পরিকাঠামো তৈরি করছে ভারত। পালটা দিয়ে নয়া দিল্লিও দাবি করেছিল, ভারতে আক্রমণ চালানোর চেষ্টা করছে চিন।” তবে চিনা আধিকারিকদের নির্দেশ কার্যকরী হয়েছে কিনা, সেই বিষয়ে মার্কিন রিপোর্টে কিছু বলা হয়নি।

[আরও পড়ুন:সমকামী বিয়ে নিয়ে ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত, মার্কিন সেনেটে পাশ বিল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে