৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ভারতকে চাপে রাখার চেষ্টা! অরুণাচল প্রদেশের কাছে তিনটে গ্রাম বানিয়েছে চিন

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: December 6, 2020 4:23 pm|    Updated: December 6, 2020 4:23 pm

China has constructed at least 3 villages, approximately 5 kilometres from the Bum La pass । Sangbad Pratidin

ঘটনাস্থলের উপগ্রহ চিত্র

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষের পর থেকেই ভারতের বিরুদ্ধে বিভিন্ন চক্রান্ত চালাচ্ছে চিন। ভারতের সঙ্গে থাকা প্রতিটি সীমান্ত এলাকায় সেনার সংখ্যা আরও বাড়ানোর পাশাপাশি বিভিন্ন পরিকাঠামোও তৈরি করছে। শুধু তাই নয়, ভারত সীমান্ত সংলগ্ন নেপাল ও ভুটানের বিস্তীর্ণ এলাকা দখল করে বেশ কয়েকটি বিল্ডিং তৈরি করেছে লালফৌজ। বিভিন্ন জায়গায় গ্রাম বানাচ্ছে, রাস্তা তৈরি করছে। এমনকী ক্ষেপণাস্ত্রও মোতায়েন করেছে। কিছুদিন আগে ডোকলামের কাছে ভুটানের জমি দখল একটি গ্রাম তৈরি করার অভিযোগ উঠে বেজিংয়ের বিরুদ্ধে। উপগ্রহ চিত্রে তার সত্যতায় প্রমাণিত হয়। এবার খবর পাওয়া গেল পশ্চিম অরুণাচল প্রদেশের খুব কাছে চিনের বুম লা পাস এলাকায় তিনটি গ্রাম তৈরি করেছে চিন। যার কিছুটা দূরে রয়েছে ভুটান, ভারত ও চিন, এই তিনটি দেশের সীমান্ত। উপগ্রহ চিত্রে চিনের কীর্তি দেখে চিন্তিত কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২০ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে প্রথম জানা যায় তিনটি দেশের সংযোগস্থল সংলগ্ন বুম লা পাস (Bum La pass) থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে ফাঁকা এলাকায় কিছু বাড়ি তৈরি করছে চিন। কিন্তু, সম্প্রতি ওই এলাকার উপগ্রহ চিত্র থেকে দেখা যায় ইতিমধ্যেই সেখানে তিনটি গ্রাম তৈরি করেছে চিন। ঠিকঠাক রাস্তা-সহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থাও করেছে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই নড়েচড়ে বসেছে দিল্লি। পরিস্থিতির দিকে কড়া নজর রাখা হচ্ছে। কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভারতকে চাপে রাখতেই নতুন এই কৌশল নিয়েছে শি জিনপিংয়ের সরকার। এভাবে অরুণাচলের কাছে জায়গা দখল করে ওই এলাকায় নতুন কোন অশান্তির ছক কষছে।

[আরও পড়ুন: উলটপুরাণ! রাজতন্ত্র ও হিন্দু রাষ্ট্রের তকমা ফেরানোর দাবিতে উত্তাল নেপাল]

এপ্রসঙ্গে চিন সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞরা ব্রহ্ম চেল্লানি জানান, কমিউনিস্ট পার্টির হান চাইনিজ ও তিব্বতীয় সদস্যদের ব্যবহার করে অরুণাচল প্রদেশ (Arunachal Pradesh) সীমান্তে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চাইছে চিন। দক্ষিণ চিন সাগরে যেমন প্রথমে নিজেদের দেশের মৎস্যজীবীদের ঢুকিয়ে জলসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছিল বেজিং। ঠিক একই ভাবে অরুণাচল প্রদেশে বিভিন্ন জায়গায় নিজেদের লোক অনুপ্রবেশ করিয়ে পরিকাঠামো তৈরির মাধ্যমে ভারতের জায়গা দখলের ছক কষছে।

[আরও পড়ুন: আগামী দশকে দারিদ্র্যসীমার নিচে চলে যাবেন ১০০ কোটির বেশি, আশঙ্কা রাষ্ট্রসংঘের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে