BREAKING NEWS

২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ভারতকে বিপদে ফেলার নয়া কৌশল! এবার কি গালওয়ান নদীর গতিপথ বদলের চেষ্টা করছে চিন?

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 18, 2020 7:53 pm|    Updated: June 18, 2020 7:58 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনার পারদ ক্রমশ চড়ছে। চিন যুদ্ধের প্ররোচনা দিলে ভারত যে ছেড়ে কথা বলবে না, তা স্পষ্ট করে দিয়েছে সেনা। তাই কি এবার অন্যভাবে ভারতের পথে কাঁটা বিছিয়ে দিতে চাইছে লালফৌজ? সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের হাতে আসা এক উপগ্রহ চিত্র এই প্রশ্ন তুলে দিল। হাই রেজোলিউশনের উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে, গালওয়ান নদীর (Galwan River) গতিপথ বদলানোর চেষ্টা চালাচ্ছে চিন।

উপগ্রহ চিত্র অনুযায়ী, ভারত-চিন (China) সীমান্তের খুব কাছাকাছি গালওয়ান নদীর কাছে বুলডোজার জড়ো করেছে চিন। যা দেখে ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, সেই নদীর গতিপথে পরিবর্তন ঘটানোর চেষ্টা করছে চিন। যেখানে বুলডোজারগুলি দাঁড় করানো আছে, সেখান থেকে ক্ষীণ ধারায় নদীটি বয়ে যাচ্ছে। সেখানে বুলডোজার দাঁড় করিয়ে কাদামাটি ফেলে নদীর গতিপথ অবরুদ্ধ করা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত. চিন থেকে বয়ে আসা নদীটি লাদাখের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে। এই নদীর ধারেই ভারতীয় সেনাবাহিনীর ট্রাক দাঁড়িয়ে রয়েছে। সেখানেই সেনা জওয়ানরা অতন্দ্র পাহারায় থাকে। এই নদীর গতিপথের কাছে চিনের বুলডোজার জড়ো করা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। যদিও এ বিষয়ে চিনের তরফে কোনও বিবৃতি মেলেনি।

[আরও পড়ুন : নেপালের জাতীয় সংসদের উভয়কক্ষেই পাশ হল বিতর্কিত মানচিত্র বিল]

বিগত ৪৫ বছরের ইতিহাসে প্রাণহানির কুৎসিততম নজির গড়েছে গালওয়ান। পূর্ব লাদাখে ওই উপত্যকায় ভারতীয় ভূখণ্ড রক্ষা করতে গিয়ে ১৫ জুন চিনা বাহিনীর হামলায় শহিদ হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। তারপর থেকেই লাগাতার আলোচনা চলছে দু’দেশের মধ্যে। তবে বিবাদ কিছুতেই মিটছে না। এখনও গালওয়ানে ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে লাল ফৌজ। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (LAC) আরও সংঘাত এড়াতে বুধবার ভারত ও চিনের মধ্যে মেজর জেনারেল স্তরে বৈঠক হয়। তবে চিনা বাহিনীর একগুঁয়ে মনোভাবের জন্য ভেস্তে যায় আলোচনা। সূত্রের খবর, পূর্ব লাদাখে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বৃহস্পতিবার ফের বৈঠকে বসেছেন দুই দেশের সেনা কর্তারা। এমন পরিস্থিতিতে গালোয়ান নদীর কাছে বুলডোজার জড়ো করার উপগ্রহ চিত্র চাঞ্চল্য আরও বাড়িয়েছে।

[আরও পড়ুন : নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডামে মহাত্মা গান্ধীর মূর্তিতে ভাঙচুর, তীব্র নিন্দা ভারতের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement