০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিপজ্জনক হারে করোনা সংক্রমণ, ঝুঁকি এড়াতে বিনামূল্যে রাশিয়ায় অ্যান্টিবডি পরীক্ষা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 16, 2020 11:35 am|    Updated: May 16, 2020 11:04 pm

Corona infection rises rapidly, Moscow starts free antibody test

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিপজ্জনক হারে বাড়ছে সংক্রমণ। চোখের পলক ফেলতে না ফেলতেই রাশিয়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। ফলে চিন্তার ভাঁজও চওড়া হচ্ছে প্রশানিক কর্তাদের কপালে। এই অবস্থায় আর ঝুঁকি না নিয়ে বিনামূল্যে অ্যান্টিবডি পরীক্ষা (Free antibody test) শুরু করল মস্কো। বাসিন্দাদের প্রত্যেকের করোনা পরীক্ষা হবে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। শুক্রবারই এই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন মস্কোর মেয়র সের্গেই সোবায়ানিন।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রাশিয়ায় করোনা ভাইরাস থাবা বসিয়ে প্রায় ২ লক্ষ ৬২ হাজার ৮০০ জনের শরীরে। মৃতের সংখ্যা ২৫০০ ছুঁইছুঁই। রেকর্ড সংক্রমণ প্রায় প্রতিদিনই। এতটা বেহাল দশা দেখে প্রশাসন নড়েচড়ে বসেছে। ঠিক হয়েছে, মস্কোর ৩০টি ক্লিনিকে বাসিন্দাদের অ্যান্টিবডি পরীক্ষা করানো হবে। এর জন্য কোনও মূল্য লাগবে না। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে হওয়া এই পরীক্ষার ফলাফলই বলে দেবে, কার দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কতটা। অর্থাৎ নিজেদের সুরক্ষার স্বার্থেই এই পরীক্ষার সিদ্ধান্ত মস্কো প্রশাসনের। মেয়র সোবায়ানিন জানিয়েছেন, মস্কো শহরের ৭০ হাজার বাসিন্দাকে পরীক্ষা করানোর জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছে। মাসের শেষে গোটা দেশজুড়ে এই পরীক্ষার সংখ্যা ২ লক্ষে নিয়ে যাওয়া লক্ষ্য।

[আরও পড়ুন: বিপদের দিনে ‘বন্ধু’ মোদির পাশে ট্রাম্প, ভারতকে বহু ভেন্টিলেটর দিচ্ছে আমেরিকা]

যদিও করোনা সংক্রমণ রুখতে এভাবে অ্যান্টিবডি টেস্টের সিদ্ধান্ত নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত রুশ চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা। একদলের মতে, এই পরীক্ষা মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নির্ণয় করতে সক্ষম হলেও, এই মুহূর্তে কে বা কারা COVID-19 সংক্রমিত, তা বোঝা যাবে না। ফলে নতুন করে করোনা পরীক্ষা করতেই হবে। দ্বিতীয়ত, এই মুহূর্তে কারও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা শরীরে অ্যান্টিবডি ভাল থাকলেই যে ভবিষ্যতেও একইরকম থাকবে, তারও কোনও গ্যারান্টি নেই। অন্যদিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও (WHO) এ বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছে করোনা বিধ্বস্ত রাষ্ট্রগুলিকে। WHOর মতে, প্রচুর প্রচুর পরীক্ষাই শুধুমাত্র সমাধানের উপায় নেই। কারণ, সেসব পরীক্ষার ফলাফল কতটা নিখুঁত, তাও দেখার বিষয়।

[আরও পড়ুন: বাঁশের স্ট্রেচারে শুয়ে আহত শিশু, তাকে কাঁধে নিয়েই ১৩০০ কিমি পারি শ্রমিক পরিবারের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে