২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

করোনার জেরে চরম দারিদ্রের সম্মুখীন কোটি কোটি মানুষ! ভারতকে নিয়ে উদ্বেগ বিশ্ব ব্যাংকের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 8, 2020 12:44 pm|    Updated: October 8, 2020 12:44 pm

CoronaVirus: Pandemic could push 150 million into extreme poverty, says World Bank |Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্ব অর্থনীতির কোমর ভেঙে দিয়েছে করোনা ভাইরাস (Coronavirus)। বিশেষ করে অনুন্নত বা উন্নয়নশীল দেশগুলিতে এর প্রভাবে মারাত্মক। উন্নত দেশগুলিও এর প্রভাবে নাজেহাল। পরিস্থিতি এতটাই সঙ্গীন যে স্রেফ এক বছরে গোটা বিশ্বের প্রায় ১৫ কোটি মানুষ চরম দারিদ্রের (Extreme Poverty) সম্মুখীন হতে চলেছে। ভারতের মতো দেশগুলিতে ছবিটা ভয়ংকর।

বিশ্ব ব্যাংকের (World Bank) দেওয়া রিপোর্ট বলছে, চলতি বছরে বিশ্বজুড়ে চরম দারিদ্রসীমার নিচে নেমে যেতে চলেছে আরও অন্তত ৮ কোটি ৮০ লক্ষ থেকে ১১ কোটি ৫০ লক্ষ মানুষ। যার অর্থ, এই এক অর্থবর্ষে নতুন করে চরম দারিদ্রসীমার নিচে নেমে যেতে চলেছে মোট ১৫ কোটি মানুষ। এর ফলে সমাজে অর্থনৈতিক বৈষম্য আরও প্রকট হতে চলেছে। যে সমস্ত দেশে জনসংখ্যা বেশি এবং আগে থেকেই যে সমস্ত দেশে দারিদ্রের হার বেশি, সেই সব দেশের ছবিটা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। এই তালিকায় থাকছে ভারতও। বিশ্ব ব্যাংকের রিপোর্ট বলছে, এই মহামারীর ফলে শুধু যে দারিদ্র বাড়বে তাই নয়। অনেক স্বচ্ছল পরিবারও নেমে যাবে নিম্নমধ্যবিত্তের তালিকায়। বিশ্ব ব্যাংক বলছে, ২০২০ সালে গোটা বিশ্বের ৯.১ থেকে ৯.৪ শতাংশ মানুষ চরম দারিদ্রসীমার নিচে চলে যাবে। অথচ মহামারী আসার আগে এই সংখ্যাটা কমে ৭.৯ শতাংশ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

[আরও পড়ুন: কোভিড পরবর্তী দুনিয়ার ‘চক্ষুশূল’ চিন, ‘কোনঠাসা’ জিনপিং-ও, বলছে সমীক্ষা]

এতো গেল গোটা বিশ্বের চিত্র। ভারতের পরিস্থিতি নিয়ে আলাদা করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব ব্যাংক। কারণ, নয়াদিল্লির কাছে নাকি দেশের দারিদ্রের কোনও পরিসংখ্যানই নেই। ফলে ভারতে কী পরিমান মানুষ ইতিমধ্যেই দারিদ্রসীমার নিচে নেমে গিয়েছে, আরও কত মানুষ নামতে পারে, সেটা আন্দাজ করা কঠিন। বিশ্ব ব্যাংক বলছে, দেশবাসীর আয় সম্পর্কিত সাম্প্রতিক তথ্য ভারত দেয়নি। তাতে এ দেশের পরিস্থিতি জানা আরও কঠিন হয়ে পড়েছে। তাদের বক্তব্য, ‘‘বিশ্বের অন্যতম বড় অর্থনীতির কাছে তথ্য নেই! অথচ এ দেশে দরিদ্রের সংখ্যা যথেষ্টই।” আর সেটা ভারতের ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি করেছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে