BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ছন্দে ফিরছে ‘করোনাজয়ী’ ইউহান, ১ সেপ্টেম্বর থেকেই খুলছে স্কুল

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 31, 2020 3:11 pm|    Updated: August 31, 2020 3:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার আঁতুড়ঘর ইউহানে স্বভাবিক ছন্দে ফিরছে জীবন। আগামীকাল, অর্থাৎ ১ সেপ্টেম্বর থেকেই ওই শহরের প্রায় তিন হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে পঠনপাঠনের জন্য খুলে দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: লন্ডনে পাকবিরোধী বিক্ষোভ সিন্ধ বালোচ ফোরামের, আঁচ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির সামনেও]

চিনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী ইউহান শহরেই ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথম করোনা ভাইরাসের সন্ধান মেলে। ওই শহরের একটি মাছ-মাংসের বাজার থেকেই ছড়াতে শুরু করে সংক্রমণ। অভিযোগ, ইউহানের একটি জীবাণু গবেষণাগার থেকেই সার্সকোভ-১৯ ভাইরাসটি বেরিয়ে পড়েছিল। শুরু দিকে নিউমোনিয়ার মতো রোগে আক্রান্ত হতে থাকেন একের পর এক মানুষ। তারপরই সামনে আসে তাঁরা করোনায় আক্রান্ত। সংক্রমণ রুকঝতে গত জানুয়ারি মাস থেকে এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন চলছিল ওই শহরে। তারপর থেকে ক্রমে স্বাভাবিক হয়ে এসেছে পরিস্থিতি। সেই অর্থে নতুন করে সংক্রমণের খবর আপাতত নেই। তবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ে এখনও সতর্কতার প্রয়োজন রয়েছে বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

উল্লেখ্য, গত জুলাই মাসেই চিনে আসে দুই সদস্যের WHO-এর তদন্তকারী দল। প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে তদন্ত চালিয়ে সম্প্রতি অনুসন্ধানে ইতি টানেন তাঁরা। অদ্ভুতভাবে, ইউহান না গিয়েই ফিরে আসেন তাঁরা, এই ঘটনায় যথারীতি তোপ দেগেছে আমেরিকা। এক শীর্ষ মার্কিন আমলার মতে, এই তদন্তের পরিণতি যে কী তা সবার জানা। সংক্রমণ ছড়ানোর যেটুকু প্রমাণ অবশিষ্ট ছিল এবার তাও লোপাট হয়ে গেল। গত জানুয়ারি মাসেই WHO-এর ডিরেক্টর-জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস (Tedros Adhanom Ghebreyesus)জানান আন্তর্জাতিক মঞ্চের উদ্বেগের কথা মাথায় রেখে, চিনে দ্রুত তদন্তকারী দল পাঠানো নিয়ে বেজিংয়ের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে তাঁর। তবে দ্রুত দল পাঠানোর কথা বললেও, তদন্তে এতদিন লাগল কেন, তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে ঘেব্রিয়েসুসকে। এবার ইউহান না গিয়েই তদন্ত শেষ করে ফের প্রশ্নের মুখে পড়ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিরপেক্ষতা।

[আরও পড়ুন: তিব্বতকে ‘চিন প্রেমের’ শিক্ষা দেবে বেজিং, ভারতকে কোণঠাসা করতে নয়া ছক ড্রাগনের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement