BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ২০ হাজার, ইটালিকেও ছাপিয়ে গেল আমেরিকা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 12, 2020 9:53 am|    Updated: April 12, 2020 9:53 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মৃত্যুর সংখ্যায় ইটালিকে ছাপিয়ে গেল আমেরিকা। গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন মুলুকে ১৯২০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে এএফপি সূত্রের খবর। ওই দেশে মোট মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। এতদিন এই ভয়াবহ রেকর্ড ছিল ইটালির। এবার ট্রাম্পের দেশে বিশ্বের সর্বাধিক মানুষের মৃত্যুর পরিসংখ্যান উঠে এল। বিশ্বের সর্ব শক্তিধর দেশ এখন মারণ ভাইরাসের হত্যালীলার সামনে নতজানু। মৃত্যুপুরী হয়ে উঠেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

প্রসঙ্গত, গত চারদিন টানা আমেরিকায় প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২০০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি হয়েছে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী নিউ ইয়র্কের। সেখানে করোনা ছোবলে সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি হয়েছে। লাশের স্তূপ দেখছেন সাধারণ মানুষ। শনিবার এই শহরেই মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৭৯০ জনের। এখনও পর্যন্ত নিউ ইয়র্কে মোট মৃতের সংখ্যা ৮ হাজার ছাড়িয়েছে। আমেরিকায় এই মূহূর্তে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। সংক্রমণ রুখতে সরকারের তরফে জনগণকে ঘরে থাকার কড়া নির্দেশ। তবুও মৃত্যু মিছিল আটকানো যাচ্ছে না। দিন দিন মৃত্যু ও আক্রান্তের পরিসংখ্যান কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও গভীর করছে ট্রাম্প প্রশাসনের।

[আরও পড়ুন: এশিয়া নয়, ইউরোপ থেকেই নিউ ইয়র্কে ছড়িয়েছে করোনার বিষ!  ]

আরও উদ্বেগের খবর প্রবাসী ভারতীয়দের জন্য। মার্কিন মুলুকে COVID-19 আক্রান্ত হয়ে কমপক্ষে ৪০ জন ভারতীয় বংশোদ্ভূতের মৃত্যু হয়েছে। করোনা আক্রান্ত দেড় হাজারেরও বেশি ইন্দো-মার্কিন। এদিকে, বিশ্বে করোনা পজিটিভের সংখ্যা ১৭ লক্ষ ছাড়িয়েছে। আমেরিকা, চিন, ইটালি, স্পেন, ফ্রান্স, জার্মানি, ব্রিটেনের মতো প্রথম বিশ্বের দেশগুলিতে করোনার কোপ সবচেয়ে বেশি। গোটা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত ১ লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনার বলি হয়েছেন। সংক্রমণ রুখতে সব দেশের এখন একটাই দাওয়াই, লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো। ইতিমধ্যেই চিনের ইউহানে লকডাউন উঠে গেলেও বিশ্বের বাকি দেশগুলি লকডাউনের পথ থেকে সরছেন না। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তো বলেই দিয়েছেন, কোনও জাদুবলে হবে না, একটাই পথ হল ঘরে থাকা।

[আরও পড়ুন: ‘বিশ্বজুড়ে লকডাউনের ফলে হতে পারে খাদ্যসংকট, আশঙ্কা দুর্ভিক্ষেরও’, সতর্কবার্তা রাষ্ট্রসংঘের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement