৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মৃত্যুর পরেও অমলিন তাঁর স্মৃতি। দেশের পাশাপাশি বিদেশের মাটিতে আজও তাঁর স্মৃতিচারণা করছেন সাধারণ মানুষ। এবার রাষ্ট্রসংঘের সদর দপ্তরে ভারতের প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী প্রয়াত সুষমা স্বরাজকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করলেন ৫১টি দেশের কূটনৈতিকরা। শনিবার সেখানে সুষমা স্বরাজের স্মৃতির উদ্দেশ্যে একটি স্মরণসভার আয়োজন করেছিলেন রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি সৈয়দ আকবরউদ্দিন। সেখানে থাকা মেসেজ বইতে নিজেদের শোকবার্তা লিপিবদ্ধ করলেন ৫১টি দেশের কূটনৈতিকরা।

[আরও পড়ুন: রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাগারে রকেট বিস্ফোরণ, মৃত ৫ পরমাণু বিজ্ঞানী]

স্মরণসভার পরে এপ্রসঙ্গে একটি টুইট করেন ভারতীয় রাষ্ট্রদূত ও রাষ্ট্রসংঘে দেশের স্থায়ী প্রতিনিধি সৈয়দ আকবরউদ্দিন। তাতে লেখা ছিল, কূটনৈতিক সম্পর্কে শব্দই গুরুত্বপূর্ণ। সারা বিশ্বের কূটনৈতিকরা ম্যাডাম সুষমা স্বরাজের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ। তাঁর স্মৃতিতে রেকর্ড সংখ্যক শোকবার্তা লিপিবদ্ধ হয়েছে। ।যা নতুন নজির।

এই টুইটের সঙ্গে দু’মিনিট ২০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন তিনি। তাতে দেখা যাচ্ছে, ৫১টি দেশের কূটনৈতিকরা তাঁদের শোকবার্তা লিপিবদ্ধ করার জন্য লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। তাতে রয়েছেন, রাশিয়া, জার্মানি, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইটালি, সুইজারল্যান্ড, আর্জেন্টিনা, বাহারিন, বাংলাদেশ, ভুটান, ব্রাজিল, দক্ষিণ কোরিয়া, মিশর, ফিজি, জর্জিয়া, ঘানা, কেনিয়া, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, মাল্টা, মায়ানমার, নেপাল, নিউজিল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান, ইজরায়েল, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী-সহ অন্যরা।

[আরও পড়ুন: ভারতের পাশে রাশিয়া, কাশ্মীরে নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদেও মুখ পুড়ল পাকিস্তানের]

২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ভারতের বিদেশমন্ত্রীর পদে ছিলেন প্রয়াত এই জননেত্রী। বিদেশ মন্ত্রক সম্পর্কে সাধারণ মানুষের ধারণাই বদলে গিয়েছিল তাঁর আমলে। টুইটারকে ব্যবহার করে কীভাবে দেশের সাধারণ নাগরিকদের মনকে স্পর্শ করা যায় তা প্রথম তাঁর কাছ থেকেই শিখছিলেন সবাই। দেশের বাইরে যখনই কেউ সাহায্য চেয়েছে তখনই তাঁর মানবিক স্পর্শ রক্ষা করেছে শরণাগতকে। দু’দেশের চরম টানাপোড়েনের মধ্যেও পাকিস্তানের নাগরিকদের মেডিক্যাল ভিসা পাইয়ে দিতে কোনও অজুহাত দেননি তিনি। যতটা সম্ভব বাড়িয়ে দিয়েছেন সাহায্যের হাত। এই মানসিকতাই ভারতের সবচেয়ে সফল মানবিক বিদেশমন্ত্রী হিসেবে গড়ে তুলেছে তাঁর পরিচয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং