BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘গ্রিন কার্ড চাইলে প্রবেশ বন্ধ’, অভিবাসন নীতি নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করলেন ট্রাম্প

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 22, 2020 9:47 am|    Updated: April 22, 2020 9:47 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নয়া অভিবাসন নীতি নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)। জানিয়ে দিলেন, তিনি যে বিদেশিদের আমেরিকার মাটিতে অভিবাসন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা আপাতত ২ মাস স্থায়ী হবে। এবং তা শুধু যারা গ্রিন কার্ড নিয়ে আমেরিকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করতে চাইবেন, তাঁদের জন্য কার্যকর। অস্থায়ীভাবে কেউ মার্কিন মুলুকে প্রবেশ করতে চাইলে তাঁকে বাধা দেওয়া হবে না।

করোনা আবহে আমেরিকা এবং আমেরিকানদের স্বার্থরক্ষায় সোমবারই অভিবাসন (Immigration into the United States) অস্থায়ীভাবে বন্ধের সিদ্ধান্ত জানিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে সেসময় নিজের পরিকল্পনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানাননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট। মঙ্গলবার নিজের পরিকল্পনা বিস্তারিতভাবে জানালেন তিনি। আর তাতে বোঝা গেল সোমবার তিনি যে পরিমাণ গর্জন করেছিলেন, সেই পরিমাণ বর্ষণ করবেন না। মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট বললেন, ‘এই বিরতি ৬০ দিন স্থায়ী হবে। এর ফলে লকডাউন শেষ হলে কর্মহীন আমেরিকানরা কাজের সুযোগ পাবেন। তবে, অভিবাসন বন্ধের এই সিদ্ধান্ত শুধুমাত্র যারা স্থায়ীভাবে আমেরিকায় বসবাস করতে চাই অর্থাৎ গ্রিন কার্ড সংগ্রহ করতে চাই তাঁদের জন্য লাগু হবে। যারা অস্থায়ীভাবে আমেরিকায় প্রবেশ করবে তাঁদের উপর লাগু হবে না।’

[আরও পড়ুন: ‘কোনও গবেষণাগারে করোনার সৃষ্টি হয়নি’, ফের চিনের পাশে দাঁড়াল WHO]

অভিবাসন বন্ধের মেয়াদ মাত্র ৬০ দিন হওয়ায় আমেরিকায় চাকরিপ্রার্থী বিদেশিরা স্বস্তি পাবেন তাতে সংশয় নেই। কারণ, আগামী ২ মাস লকডাউনের জেরে এমনিতেও মার্কিন মুলুকে কাজের সুযোগ কম তৈরি হবে। ট্রাম্প অবশ্য ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন প্রয়োজনে অভিবাসন বন্ধের এই মেয়াদ আরও বাড়ানো হতে পারে। উল্লেখ্য, প্রতিবছর ভারত এবং বাংলাদেশ থেকে বহু প্রতিভাবান ব্যক্তি আমেরিকায় চাকরির সন্ধানে যান। কিন্তু এই মুহূর্তে মার্কিন অর্থনীতি চরম দুর্দিনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। করোনার দাপট বাড়ার পর অন্তত ২ কোটি ২০ লক্ষ মানুষ বেকার হয়েছেন আমেরিকায়। এর মধ্যে বহু ভারতীয়ও আছেন। আগামী দিনে আরও বহু ভারতীয়র চাকরি খোয়ানোর আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement