২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কলকাতার আমরি হাসপাতালের স্মৃতি ফিরল রিও দি জেনেইরোর হাসপাতালে। ব্রাজিলের রাজধানীর বাদিম হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অন্তত দশজনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। দমকলবাহিনী দীর্ঘ চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় সময় সন্ধে ৮টা এবং স্থানীয় সময় রাত ১১টায় আগুন লাগে। খবর ছড়িয়ে পড়তেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্টাফরা। রোগীদের কীভাবে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হবে, তা ভেবে নাজেহাল হয়ে পড়েন তাঁরা। তাও নার্ভ শক্ত রেখে রোগীদের স্থানান্তকরণের কাজ করতে থাকেন তাঁরা। তবে সকলের প্রাণরক্ষা করা সম্ভব হয়নি। ব্রাজিলীয় দমকলবাহিনীর তরফে জানানো হয়েছে, হাসপাতালের মধ্যে জেনারেটরে শর্ট সার্কিট থেকেই আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। তবে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আগুন লাগানো হতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে। গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অগ্নিকাণ্ডে প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে ১০ জন বলে জানিয়েছে দমকল। তবে তাঁরা সকলেই রোগী নাকি হাসপাতাল কর্মীও সেই তালিকায় রয়েছেন, তা স্পষ্ট করা হয়নি। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত দেহ উদ্ধারের কাজ চালান দমকল কর্মীরা। ৯০ জন রোগীকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

[আরও পড়ুন: আরব দুনিয়ায় পোশাক বিপ্লব, বোরখা ছেড়ে পাশ্চাত্য বেশভূষায় সৌদি ললনারা]

আগুন লাগার খবর ছড়িয়ে পড়তেই হাসপাতালের বাইরে ভিড় জমে যায়। ফলে আহতদের বের করে অ্যাম্বুল্যান্সে নিয়ে যেতেও বেশ বেগ পেতে হয় দমকল কর্মীদের। ভয়ংকর ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে ৯৩ বছরের এক রোগীর পরিবারের লোক বলছেন, “মাকে কোনওক্রমে ঘরের বাইরে নিয়ে আসি। চারিদিকে তখন লোকজন ছুটোছুটি করছে। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার কারণেই আতঙ্কিত হয়ে পড়ছিলেন সকলে।”

উল্লেখ্য, এর আগে গত বছর ভয়াবহ আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল ব্রাজিলের ন্যাশনাল মিউজিয়াম। সেবছরই ফেব্রুয়ারিতে একটি বিল্ডিংয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন ফ্লেমিঙ্গো ফুটবল ক্লাবের ১০ জন সদস্য।

[আরও পড়ুন: জঙ্গি তৈরিতে খরচ ৭ লক্ষ কোটিরও বেশি, অকপট স্বীকারোক্তি ইমরানের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং