BREAKING NEWS

৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ২৩ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ধাক্কা খেল ‘গ্লোবাল জেহাদ’, ফরাসি বাহিনীর হামলায় খতম আল কায়দা কমান্ডার

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 14, 2020 9:29 am|    Updated: November 14, 2020 9:29 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আফ্রিকা মহাদেশে ফের বড়সড় ধাক্কা খেল আন্তর্জাতিক জেহাদি সংগঠন আল কায়দা (Al Qaeda)। এবার মালিতে ফরাসি বাহিনীর হামলায় খতম হয়েছে সংগঠনটির শীর্ষ জঙ্গিনেতা বাহ আগ মউসা (Bah Ag Moussa)। টুইটারে এই খবর ঘোষণা করেন ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পার্লে।

[আরও পড়ুন: ভারতের পাঠানো মাছে মিলল করোনা ভাইরাস! সাময়িক আমদানি বন্ধের সিদ্ধান্ত চিনের]

মালির সরকারি বাহিনী ও আন্তর্জাতিক যৌথবাহিনীর উপর বেশ কয়েকটি হামলা চালিয়ে রীতিমতো আতংক তৈরি করেছিল সে দেশে আল কায়দার শাখা সংগঠন Group to Support Islam and Muslims (GSIM)। বেশ কয়েকদিন ধরেই সংগঠনটির প্রধান মউসার খোঁজে হন্য হয়ে ঘুরছিল ফরাসি বাহিনী। অবশেষে গত মঙ্গলবার পূর্ব মালির মেনাকা শহরের কাছে তাকে ঘিরে ফেলে ফরাসি বাহিনী। হেলিকপ্টার ও দিয়ে আকাশ পথে হামলা চালানোর পাশাপাশি ওই জঙ্গি নেতার গোপন ডেরায় হানা দেয় কমান্ডোরাও। বেশ কিছুক্ষণ লড়াইয়ের পর নিকেশ হয় কুখ্যাত জেহাদি মউসা। জানা গিয়েছে, মালির সবচেয়ে বড় জঙ্গি সংগঠন ‘Jamaat Nusrat al-Islam wal-Muslimin’ (JNIM)-এর প্রধান ইয়াদ আগ ঘালির সবচেয়ে কাছের লোক ছিল মউসা। উল্লেখ্য, JNIM সংগঠনটিও আল কায়দার হয়ে কাজ করে।

উল্লেখ্য, এদিকে, ‘গ্লোবাল জেহাদ’ বা গোটা বিশ্বে সন্ত্রাসের বিষ ছড়িয়ে দিতে ভারতীয় উপ-মহাদেশের পাশাপাশি মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকা মহাদেশেও পা রেখেছিল আল কায়দা। কিন্তু সেখানেও বিশেষ সুবোধ করে উঠতে পারছে না সংগঠনটি। সিরিয়ায় গত জুন মাসে এক বিরোধী গোষ্ঠীর হামলার কোমর ভেঙেছে আল কায়দার। আসাদের দেশে সংগঠনটি কাজ করবার চালায় ‘হুররাস আল-দিন’ নামে। কিন্তু সিরীয়দের মধ্যে জমি শক্ত করতে পারেনি দলটি। কারণ সিরিয়ানরা মনে করে আল কায়দার সঙ্গে কোনও যোগ পাওয়া গেলে আসাদ ও মার্কিন যৌথবাহিনীর হাত থেকে তাদের কেউ রক্ষা করতে পারবে না। তা সেই ধারণা ভুল নয়, মার্কিন ড্রোন হানায় বেশ কয়েকজন নেতার মৃত্যুর পর বিগত দু’মাস ধরে সিরিয়ায় কার্যত কোমায় চলে গিয়েছে আল কায়দা বা ‘হুররাস আল-দিন’।

ইয়েমেনে মার্কিন ড্রোন হামলায় খতম হয়েছে সে দেশের সংগঠনটির প্রধান। al-Qaeda in the Arabian Peninsula (AQAP) নামে বিগত দশকে ইয়েমেনে রীতিমতো আতঙ্ক তৈরি করেছিল সংগঠনটি। কিন্তু গত জানুয়ারি মাসে মার্কিন ড্রোন হানায় খতম হয় সংগঠনটির প্রধান। তাছাড়া, সম্প্রতি ইরানের মদতপুষ্ট হাউথি বিদ্রোহীদের কাছে মধ্য বায়দা প্রদেশ হাতছাড়া হয় AQAP’র। তবে এখনও ইউরোপের দেশগুলিতে ‘লোন উলফ’ হামলা চালাতে সক্ষম সংগঠনটি। গত ডিসেম্বর মাসে ফ্লোরিডার মার্কিন নৌঘাঁটিতে হামলার ব্যক্তির যোগ ছিল AQAP’র সঙ্গে। গত জুন মাসের শুরুর দিকে আলজেরিয়ায় আল কায়দার শাখা সংগঠন ‘Al-Qaeda in the Islamic Maghreb’র (AQIM) প্রধান খতম হয় ফরাসি বাহিনীর বিমান হামলায়। তারপর থেকে সেখানে তেমনভাবে উপস্থিতি জানান দিতে ব্যর্থ হয়েছে সংগঠনটি। তবে মালি ও সোমালিয়ায় এখনও শক্তিশালী জেহাদি সংগঠনটি। মালিতে আল কায়দার শাখা সংগঠনের নাম ‘Jamaat Nusrat al-Islam wal-Muslimin’ (JNIM)। সোমালিয়ায় আল কায়দার হয়ে কাজ করে কুখ্যাত ‘al-Shabab’ জঙ্গি সংগঠনটি।

[আরও পড়ুন: ‘জেলে আমার বাথরুমে ক্যামেরা লাগানো হয়েছিল’, বিস্ফোরক অভিযোগ নওয়াজ কন্যার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement