BREAKING NEWS

১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শতবর্ষ পুরনো যৌথ ব্যবসায় ভাঙন! সম্পত্তির ভাগাভাগি চেয়ে আদালতে হিন্দুজা পরিবার

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 25, 2021 3:44 pm|    Updated: November 25, 2021 3:47 pm

Hinduja family feud puts their century-old family business empire in jeopardy | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংসারে অশান্তি এড়াতে উদ্যোগপতি মুকেশ আম্বানির (Mukesh Ambani) পরিবার থেকে সম্পত্তি ভাগের ইঙ্গিত মিলেছিল আগেই। এর ২৪ ঘণ্টা কাটার আগে বুধবার সামনে এল আর এক ধনকুবের হিন্দুজা (Hinduja Family) পরিবারের লড়াই। পারিবারিক সম্পত্তির ভাগাভাগি নিয়ে ভারতীয় বং‌শোদ্ভূত ব্রিটিশ চার ধনকুবের ভাইয়ের লড়াই ইতিমধ্যেই পৌঁছে গিয়েছে আদালতে।

হিন্দুজা গ্রুপের (Hinduja Group) বিভিন্ন সংস্থার মোট সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ১,৫০০ কোটি ডলার। ভারতীয় মুদ্রায়  প্রায় ১ লক্ষ ১২ হাজার কোটি টাকা। আর সেই ভাগ নিয়েই লড়াই চার ভাই, শ্রীচাঁদ, গোপীচাঁদ, প্রকাশ এবং অশোকের মধ্যে। হিন্দুজা ব্যাঙ্কের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার উদ্দেশ্যে বছর খানেক আগেই আদালতে আবেদন জানিয়েছেন বড়ভাই শ্রীচাঁদ।

[আরও পড়ুন: ‘জনাব নয়, শ্রী বলুন’, অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের ভুল শুধরে দিলেন মন্ত্রী ফিরহাদ]

১০৭ বছর আগে এই শিল্পগোষ্ঠীর জন্ম দিয়েছিলেন প্রয়াত পরমানন্দ হিন্দুজা। তাঁর মৃত্যুর পর যৌথভাবেই তা এগিয়ে নিয়ে যায় তাঁর চার ছেলে। গাড়ি, ব্যাংকিং, গ্যাস, তেল, স্বাস্থ্য পরিষেবা, বিদ্যুৎ-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ৩৮টি দেশ জুড়ে ছড়ানো তাঁদের ব্যবসা। কিন্তু হঠাৎ করেই সুখের সংসারে এখন অশান্তির মেঘ। 

সংবাদসংস্থার খবর, ৮৫ বছরের শ্রীচাঁদ স্মৃতিভ্রংশ রোগে ভুগছেন। তাঁর হয়ে আইনি লড়াইয়ের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন দুই মেয়ে বিনু এবং শানু। শানুর ছেলে করমই বকলমে দাদুর তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা তদারকি করছেন। উল্লেখ্য, সাত বছর আগের এক যৌথ ঘোষণাপত্রকে কেন্দ্র করে অশান্তি শুরু। সেখানে বলা হয়েছিল, কোনও এক ভাইয়ের হাতে থাকা সম্পত্তি আদতে চার ভাইয়েরই। কিন্তু শ্রীচাঁদ ও তাঁর কন্যাদের দাবি, ওই যৌথ ঘোষণাপত্রের আইনি বৈধতা নেই।

[আরও পড়ুন: দলবদল নিয়ে বিস্ফোরক মনোরঞ্জন ব্যাপারী! ‘দলকে বিড়ম্বনায় ফেলছেন’, পালটা তোপ তৃণমূলের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে