BREAKING NEWS

১৬ মাঘ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘গদি বাঁচাতে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত পাক সেনার কাছে ভিক্ষা চেয়েছেন ইমরান খান’, দাবি নওয়াজ শরিফের মেয়ের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 27, 2022 9:17 pm|    Updated: April 27, 2022 9:17 pm

Imran Khan 'begged' the military establishment till the last minute to save his government, Says Maryam Nawaz | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজের গদি বাঁচাতে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত পাক সেনার কাছে ভিক্ষা চেয়েছেন ইমরান খান (Imran Khan)। এমনকী পাকিস্তান পিপলস পার্টির সহকারী চেয়ারম্যান আসিফ আলি জারদারির কাছেও সাহায্য চেয়েছিলেন তিনি। এমনটাই দাবি করলেন পিএমএল(এন) নেত্রী তথা প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের কন্যা মরিয়ম শরিফ।

মরিয়মের বক্তব্য, “ইমরান নিজের গদি বাঁচাতে এতটাই মরিয়া ছিলেন যে, শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত সেনার কাছে ভিক্ষা চেয়েছেন। এমনকী পিপিপি নেতা আসিফ আলি জারদারির কাছেও সাহায্য চেয়েছিলেন।” যদিও কোনও কিছুতেই কাজের কাজ হয়নি। ইমরানকে গদিচ্যুত হতে হয়েছে। মরিয়মের দল পিএমএল(এন) (PML-N) এবং জারদারির দল পিপিপি (PPP) যৌথভাবে পাকিস্তানে এখন শাসন করছে।

[আরও পড়ুন: বুলডোজার চালিয়ে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে পথে বিজেপি, কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি]

বস্তুত, ইমরান খানের পাকিস্তানের মসনদ হারানোর নেপথ্যে যে সেদেশের সেনাই রয়েছে, সেটা এখন ওপেন সিক্রেট। শোনা যায়, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও সেনাবাহিনীর মধ্যে টানাপোড়েন শুরু হয় আইএসআই প্রধান পদে লেফটেন্যান্ট জেনারেল নাদিম আহমেদ অঞ্জুমের নিয়োগ নিয়ে। সাধারণত সেনার তরফে আইএসআই (ISI) প্রধান হিসেবে তিনটি নাম প্রস্তাব করা হয়। যার একটিতে সিলমোহর দেন প্রধানমন্ত্রী। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকলেও তিনি কাকে অনুমোদন করছেন, তার ইঙ্গিত সেনাই দেয়। কিন্তু আইএসআই প্রধান নির্বাচনের ক্ষেত্রে সেনার পছন্দে শুরুতে সায় দেননি পাক প্রধানমন্ত্রী। সেটা নিয়েই শুরু বিবাদ। সূত্রের দাবি, সেই বিবাদ চরম আকার ধারণ করার জেরেই প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রীকে গদি হারাতে হয়।

[আরও পড়ুন: রোজা রেখেছেন, জানতে পেরে ইফতারের ব্যবস্থা করল রেল, আপ্লুত যাত্রী]

তাৎপর্যপূর্ণভাবে ইমরান নিজে গদি হারানোর পিছনে বিদেশি ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব তুলে এনেছিলেন। যা খারিজ করে দিয়েছে পাক সেনাবাহিনী। পাক সেনার মুখপাত্র বাবর ইফতিকার জানিয়েছেন, ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যূত করতে কোনও বিদেশি শক্তি কাজ করেনি। আর আস্থাভোটে সেনাবাহিনীর কোনও হাতও ছিল না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে