১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  রবিবার ১৬ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ঘরে বাবা-মা’র মৃতদেহ, ব্যালকনিতে কাঁদছে শিশু! আমেরিকায় রহস্যমৃত্যু ভারতীয় দম্পতির

Published by: Biswadip Dey |    Posted: April 9, 2021 6:36 pm|    Updated: April 9, 2021 6:36 pm

Indian techie, wife found dead in US, daughter, 4, seen crying on balcony । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমেরিকার (US) নিউ জার্সিতে (New Jersy) ভারতীয় দম্পতির রহস্যময় মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় ছড়াল চাঞ্চল্য। পেশায় তথ্যপ্রযুক্তির কর্মী বালাজি ভারত রুদ্রেশ্বর ও তাঁর স্ত্রী আরতির দেহ ইতিমধ্যেই ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে। দু’জনের শরীরে ছুরির আঘাতের একাধিক চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, তাঁদের একমাত্র সন্তান চার বছরের একরত্তি শিশুকন্যাকে ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে একা কাঁদতে দেখে সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের। ক্রমে প্রকাশ্যে আসে আসল ঘটনা। তবে ঠিক কী ভাবে ওই দু’জনের মৃত্যু হয়েছে তা এখনও বুঝতে পারেনি পুলিশ। মনে করা হচ্ছে, ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে এবিষয়ে কিছুটা ধারণা করা যাবে। যদিও এক মার্কিন সংবাদমাধ্যমের দাবি, লিভিং রুমে ঝগড়া শুরু হলে বালাজির স্ত্রী আরতি তাঁকে মারতে যান। তখনই ছুরি দিয়ে স্ত্রীর পেটে পরপর আঘাত করতে থাকেন বালাজি। এরপরই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন দু’জনে।

[আরও পড়ুন: কোভিড বিধি না মানায় খোদ প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানা! নজির গড়ল নরওয়ে]

বালাজির বাবা ভরত রুদ্রাওয়ার সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, স্থানীয় পুলিশ তাঁর ছেলে ও বউমার মর্মান্তিক মৃত্যু সম্পর্কে তাঁদের জানিয়েছে। তাঁর কথায়, ”মৃত্যুর কারণটি এখনও পরিষ্কার নয়। মার্কিন পুলিশ জানিয়েছে, ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে এলে সেদিকটা কিছুটা পরিষ্কার হবে।” সেই সঙ্গে এও জানা গিয়েছে, আরতি ছিলেন সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। শিগগিরি তিনি ও তাঁর স্ত্রী ছেলে-বউমার কাছে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু তার আগেই কী করে এমন ঘটনা ঘটে গেল ভেবে পাচ্ছেন না তাঁরা।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে বিয়ে হয়েছিল বালাজি ও আরতির। পরের বছরই তাঁরা আমেরিকায় চলে আসেন। ভরত জানিয়েছেন, তাঁর ছেলের স্থানীয় ভারতীয় প্রবাসীদের অনেকের সঙ্গেই সুসম্পর্ক ছিল। তাঁদেরই একজনের কাছে এই মুহূর্তে রয়েছে বালাজিদের একমাত্র সন্তান।

[আরও পড়ুন: রাফালে চুক্তি: কোটি টাকার বিনিময়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নথি ফাঁস! দাবি ফরাসি সংবাদমাধ্যমের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement