BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

জোর করে গোমাংস খাওয়ানোর অভিযোগ, সৌদি আরবে বিপাকে হিন্দু যুবক

Published by: Sayani Sen |    Posted: June 2, 2019 1:35 pm|    Updated: June 2, 2019 1:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংসারের দায়িত্ব কাঁধে নিতে হবে৷ অথচ দেশে মনের মতো মিলছে না চাকরি৷ তাই বাধ্য হয়েই পাড়ি দিয়েছিলেন সৌদি আরবে৷ স্বপ্ন দেখেছিলেন উপার্জন ভাল হলে সুখে থাকবেন পরিজনেরা৷ কিন্তু সৌদি আরবে পা রাখামাত্রই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার৷ স্বপ্নের সঙ্গে মিলল না বাস্তব৷ পরিবর্তে দেশে ফেরার জন্য বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের কাছে সাহায্যের আরজি জানালেন ওই ব্যক্তি৷

[ আরও পড়ুন: মিমি-নুসরতের পোশাক নিয়ে খোঁচা, সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচিত সাংবাদিক]

বছর একত্রিশের মাণিক চট্টোপাধ্যায় মুম্বইয়ের একটি সংস্থার মাধ্যমে সৌদি আরবে চাকরি পান৷ নিয়োগপত্র অনুযায়ী রাঁধুনি হিসাবে নিযুক্ত করা হয়েছিল তাঁকে৷ বেতন ভাল দেখে আর না করেননি৷ মুম্বই থেকে সোজা পাড়ি দিয়েছিলেন সৌদি আরবে৷ কিন্তু চাকরির শুরুতেই ধাক্কা৷ মাণিকের দাবি, তাঁকে গোমাংস রান্না করতে দেওয়া হয়৷ কিন্তু ধর্মের কথা ভেবে রান্না করবেন না বলেই ঠিক করেন তিনি৷ অভিযোগ, তাতেই অগ্নিশর্মা হয়ে যান ওই সংস্থার আধিকারিকরা৷ জোর করে গোমাংস খাওয়ানো হয় তাঁকে৷ একা মাণিক নন, ওই সংস্থায় আরও অনেক হিন্দু কর্মচারীর সঙ্গে এমন দুর্ব্যবহার করা হয় বলেও অভিযোগ ভুক্তভোগীর৷ গোটা ঘটনাটি ভিডিও আকারে টুইট করেন মাণিক৷

[ আরও পড়ুন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কর্তাদের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক, প্রথম দিনেই ‘মিশন কাশ্মীর’ অমিত শাহর]

টুইটে মাণিক লেখেন, ‘‘আমি গোটা ঘটনায় অত্যন্ত বিরক্ত৷ অত্যাচারের পর থেকে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছি৷ আমার ধর্মীয় বিশ্বাসে আঘাত করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত৷’’ বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরকে বিপদের হাত থেকে রক্ষা করার দাবিও জানিয়েছেন মাণিক৷ সৌদি আরব থেকে ফেরার বন্দোবস্ত না হলে আত্মহত্যা করবেন বলেও জানিয়েছেন মাণিক৷ এদিকে, নির্যাতিতর টুইট নজর কেড়েছে সদ্য দপ্তরের দায়িত্ব নেওয়া বিদেশমন্ত্রীর৷ বিষয়টি খতিয়ে দেখে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement