BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

মুসলিমদের গণহত্যা চলছে, দিল্লির হিংসা নিয়ে ভারতকে তোপ ইরানের সুপ্রিম লিডারের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 6, 2020 12:45 pm|    Updated: March 6, 2020 12:45 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুদিন আগেই টুইট করে উত্তর-পূর্ব দিল্লির অশান্তি নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে ছিলেন ইরানের বিদেশমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। এরপরই ভারতে নিযুক্ত ইরানের রাষ্ট্রদূত আলি চেগিনিকে ডেকে পাঠিয়ে রীতিমতো ভর্ৎসনা করা হয় বিদেশ মন্ত্রকের তরফে। ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে তাঁকে নাক না গলানোর পরামর্শ দেন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রাবিশ কুমার। তার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার টুইট করে ভারতকে হুমকি দিলেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লা আলি খামেইনি(Ayatollah Ali Khamenei)।

দিল্লির হিংসা মৃত মুসলিমদের জন্যা সারা বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ প্রচন্ড আঘাত পেয়েছে বলে অভিযোগ তাঁর। এপ্রসঙ্গে ইংরেজি, আরবি, উর্দু ও ফারসি ভাষায় তিনি টুইট করেন, ‘ভারতে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষকে নির্বিচারে খুন করা হয়েছে। এই ঘটনার ফলে সারা বিশ্বের মুসলিমরা খুব দুঃখ পেয়েছেন। যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, এই ঘটনার ফলে গোটা ইসলামিক বিশ্ব ভারতের বিপক্ষে চলে যাচ্ছে। ইসলামিক বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়া ঠেকাতে ভারত সরকারের উচিত উগ্র হিন্দুত্ববাদী দলগুলিকে দমন করা। এই ধরনের চিন্তাভাবনাকে নিয়ন্ত্রণ না করতে পারলে বড় সমস্যা দেখা দেবে। এর পাশাপাশি দেশের মধ্যে যাতে নির্বিচারে মুসলিমদের খুন না করা হয় তার জন্য উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া।’

[আরও পড়ুন: প্রবল বৃষ্টির জেরে বন্যার কবলে ব্রাজিল, ভূমি ধসে মৃত কমপক্ষে ২৯ ]

 

নিজের টুইটের সঙ্গে দিল্লির হিংসায় স্বজন হারানো একটি শিশুর ক্রন্দনরত ছবি পোস্ট করেন খামেইনি। এই ছবি মুসলিম বিশ্বের কাছে ভারতের ভাবমূর্তি খারাপ করছে বলেও উল্লেখ করেন। এর আগে সোমবার ইরানের বিদেশমন্ত্রী টুইট করেছিলেন, ভারতীয় মুসলিমদের উপরে সংগঠিতভাবে যে বর্বর আক্রমণ চালানো হয়েছে ইরান তার তীব্র নিন্দা করে। এর ফলে ভারতের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে থাকা বন্ধুত্বেও প্রভাব পড়তে পারে। হিংসার ঘটনা থামিয়ে প্রত্যেক ভারতীয়র নিরাপত্তা রক্ষা করাই সরকারের কাজ। সেদিকে তাদের মনোনিবেশ করা উচিত।

[আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা, স্ত্রীকে দীর্ঘক্ষণ শৌচালয়ে আটকে রাখলেন স্বামী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement