BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পাক সেনা সন্ত্রাসবাদের আঁতুড়ঘর, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্মেলনের মাঝেই ব্যানার জেনেভায়

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 29, 2020 11:28 am|    Updated: February 29, 2020 11:34 am

banner calling Pak Army ‘epicentre of international terrorism’

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জেনেভায় শুরু হয়েছে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার পরিষদের(UNHCR) ৪৩তম অধিবেশন। এর মাঝেই অধিবেশনস্থল থেকে কিছুটা দূরে অবস্থিত ব্রোকেন চেয়ার মনুমেন্টের সামনে একটি ব্যানার ঝুলতে দেখা গেল। তাতে লেখা রয়েছে, পাকিস্তানের সেনা হল আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের আঁতুড়ঘর। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরেই চরম অস্বস্তির মধ্যে পড়েছে ইমরান খানের সরকারকে। ইতিমধ্যে এই বিষয়ে ইসলামাবাদের তরফে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে একটি চিঠিও পাঠানো হয়েছে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার পরিষদের কাছে।

শুক্রবার দিনই ইউএনএইচসিআরের ৪৩তম অধিবেশনে বক্তব্য রাখতে উঠে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার জন্য পাকিস্তানের তীব্র সমালোচনা করে ভারত। এপ্রসঙ্গে রাষ্ট্রসংঘে ইন্ডিয়ান পার্মানেন্ট মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি ভিমার্ষ আরিয়ান ইসলামাবাদকে পরামর্শ দিয়ে বলেন, পাকিস্তানের উচিত সন্ত্রাসবাদী কাজকর্মে আর্থিক মদত দেওয়া বন্ধ করা। সেই সঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীরে নাশকতা ছড়ানোর জন্য ইসলামাবাদ নিজেদের মাটিতে যে জঙ্গি শিবিরগুলি চালাচ্ছে সেগুলিও ধ্বংস করতে হবে। জম্মু ও কাশ্মীরে আস্তে শান্তি ফিরছে। পরিস্থিতি আগের থেকে অনেক নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। কিন্তু, তা সহ্য করতে পারছে না পাকিস্তান। তাই বিভিন্ন জঙ্গি গোষ্ঠীগুলিকে মদত দিয়ে ভারতে অনু্প্রবেশ করানোর চেষ্টা করছে। কাশ্মীরের উন্নয়ন কোনওভাবে চায় না তারা। যদিও তাদের এই চক্রান্ত রোখার জন্য সবরকমভাবে তৈরি রয়েছে ভারত।

[আরও পড়ুন: তালিবান-মার্কিন শান্তি চুক্তির আসরে ডাক ভারতকেও, আজ বৈঠক দোহায়]

 

কিছুদিন আগেই প্যারিসে অনুষ্ঠিত হয় FATF-এর সম্মেলন। সেখানে সন্ত্রাসবাদে আর্থিক মদত দেওয়ার জন্য ফের ভর্ৎসনা করা হয় পাকিস্তানকে। আগামী অক্টোবর পর্যন্ত চূড়ান্ত সময়সীমা দেওয়া হয়। তারমধ্যে যদি ইসলামাবাদ নিজেদের না শোধরাতে পারে তাহলে ইমরানের সরকারকে ভয়ানক পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে বলেও সতর্ক করা হয়।

[আরও পড়ুন: নেওয়া হয়নি দ্রুত পদক্ষেপ, করোনা নিয়ে চিনা প্রশাসনকে দুষলেন বিশেষজ্ঞরা ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে