BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বেইরুট বিস্ফোরণে কোনও হাত নেই, জল্পনা উড়িয়ে জানাল ইজরায়েল

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 5, 2020 11:40 am|    Updated: August 5, 2020 11:40 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবার রাতে আচমকাই ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে লেবাননের রাজধানী বেইরুট। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে এক কিমির মধ্যে বাড়িঘর কার্যত ধুলিসাৎ হয়ে যায়। কম্পন অনুভূত হয় প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূরের দ্বীপরাষ্ট্র সাইপ্রাসেও। অঞ্চলটির রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট দেখে সবার প্রথম সন্দেহ গিয়ে পড়েছিল ইজরায়েলের উপর। মনে করা হয়েছিল বেইরুটে হামলা চালিয়েছে ইহুদি দেশটি। যদিও সেই জল্পনা উড়িয়ে এই ঘটনার সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই বলেই দাবি করেছে তেল আভিভ।

[আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় ভারত ও চিনের থেকে ভাল কাজ করছে আমেরিকা, দাবি ট্রাম্পের]

বিস্ফোরণের কিছুক্ষণের মধ্যেই ইজরায়েলের বিদেশমন্ত্রী গাবি আশকেনাজি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে দাবি করেন, বন্দর এলাকায় বিস্ফোরণটি দুর্ঘটনাবশত ঘটে থাকতে পারে। এছাড়া, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নেতানিয়াহু সরকারের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, বেইরুটে কোনও হামলা চালানো হয়নি। এই বিস্ফোরণটি নিছকই একটি দুর্ঘটনা বলেই মনে করছেন তারা। এদিকে, দুর্ঘটনার সম্ভাবনা কিছুটা জোরাল করে লেবাননের সরকারি সংবাদমাধ্যম NNA জানিয়েছে, রাজধানীর বন্দর এলাকার একটি গোদামে বিশাল পরিমাণের রাসায়নিক পদার্থ মজুত ছিল। সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় ২,৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট ফেটে এই বিস্ফোরণ হয়। সার ও বোমা তৈরির জন্য ব্যবহৃত এই বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক গত ৬ বছর ধরে বন্দরের গোদামে মজুত করা ছিল। তাও আবার কোনও সুরক্ষাবিধি না মেনেই। ঘটনার পর লেবাননের রাস্ট্রপতি মিখেল আউন এই তড়িঘড়ি নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক ডাকেন। তিনি জানিয়েছেন, নাশকতার কথা এখনই উড়িয়ে না দিয়ে তদন্ত চালানো হবে।

উল্লেখ্য, লেবানন ও ইজরায়েলের মধ্যে সংঘাত নতুন কিছু নয়। লেবাননের মুসলিম জঙ্গিগোষ্ঠী হিজবোল্লাহর সঙ্গে ইজরায়েলী বাহিনীর বেশ কয়েকবার লড়াই হয়েছে। তাৎপর্যপূর্ণভাবে, সদ্য সিরিয়ায় বাশার-আল-আসাদের বাহিনীর উপর হামলা চালিয়েছে ইজরায়েলের সেনা। তেল আভিভের অভিযোগ, সিরিয়ার জমিতে আশ্রয় পেয়েছে ইরানের মদতপুষ্ট সংগঠন হিজবোল্লাহ। সেখান থেকেই ইজরায়েলের দখলে থাকা গোলান হাইটস অঞ্চলে নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা করছে সংগঠনটি। সিরিয়ায় হামলার কছুক্ষণের মধ্যেই হিজবোল্লাহকে হুমকি দিয়েছিলেন ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। তারপরই ঘটে বেইরুটের বিস্ফোরণ। ফলে এই ঘটনায় ইজরায়েলের হাত থাকতে পারে বলে সন্দেহ করছেন অনেকেই।

[আরও পড়ুন: ২৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট ফেটেই বিপত্তি, বেইরুটে বিস্ফোরণ কাণ্ডে মৃত্যুমিছিল অব্যাহত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement