BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনার জেরে অবসাদে আত্মঘাতী জার্মানির হেসের অর্থমন্ত্রী! রেললাইন থেকে উদ্ধার দেহ

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 29, 2020 8:04 pm|    Updated: March 29, 2020 8:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার জেরে বেহাল অবস্থা জার্মানির অর্থনীতির। এরজেরেই আত্মঘাতী হয়েছেন জার্মানির অর্থমন্ত্রী থমাস শেফার, বলে অনুমান জার্মানির রাজনীতিবিদদের। রেললাইনের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয় তাঁর ছিন্নভিন্ন দেহ। কয়েকদিন ধরেই করোনা নিয়ে উদ্বীগ্ন ছিলেন বলেও জানা যায়। জার্মানির হেসের অর্থমন্ত্রী ছিলেন তিনি।

শনিবার ফ্রাঙ্কফুর্ট এবং মাইনজের মধ্যবর্তী হোচাইম শহরে হাইস্পিড ট্রেন লাইনের উপর থেকে শেফারের ছিন্নভিন্ন দেহটি উদ্ধার হয়। প্যারামেডিকসের একটি দলই তাঁর দেহটি উদ্ধার করেন। গোটা দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যাওয়ায় প্রথমে তাঁকে শনাক্ত করা যায়নি। চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়েই তিনি আত্মঘাতী হন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানায় পুলিশ। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমসূত্রে জানা গিয়েছে, করোনার প্রকোপ থেকে অর্থনীতিকে কী ভাবে বাঁচাবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভুগছিলেন ৫৪ বছরের শেফার। করোনা ঠেকাতে আর্থিক সহায়তা নিয়ে সম্প্রতি বিবৃতিও দিতে দেখা যায় তাঁকে।তবে ইদানীং জনসমক্ষেও সে ভাবে আসছিলেন না তিনি, অবসাদে ভুগছিলেন বলে মত অনেকের। শেফারের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন হেসে প্রদেশের প্রধান ভলকার বুফিয়ের। সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন,”এটি অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। এখনও বিশ্বাস করে উঠতে পারছি না।” দীর্ঘ ১০ বছর হেসের অর্থমন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন শেফার। কী ভাবে করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা করা যায়, তা নিয়ে দিন-রাত তিনি কাজ করছিলেন বলেও জানান বুফিয়ের। তিনি আরও বলেন,”নিশ্চয়ই দুশ্চিন্তায় ভুগছিলেন উনি। এই কঠিন সময়ে ওঁর মতো এক জনকে খুব দরকার ছিল আমাদের।”

[আরও পড়ুন:পেটের টানে শহরে এসে বিপাকে, লকডাউনে আটকে পড়া পরিচারিকাদের বাড়ি ফেরাল পুলিশ]

দীর্ঘ দু’দশক ধরে হেসের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন শেফার। চ্যান্সেলর অ্যাজেলা মের্কেলের সেন্টার রাইট ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্র্যাটস (সিডিইউ)-এর সদস্য ছিলেন তিনি। বুফিয়েরের উত্তরসূরি হিসাবেও তাঁকে ভেবে রেখেছিলেন অনেকেই।

[আরও পড়ুন:‘পরিযায়ী শ্রমিকদের দায়িত্ব আমার’,আশ্বস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement