BREAKING NEWS

১৬ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভারতের সমর্থনে বক্তব্য বিডেনের, চিনের উদ্বেগ বাড়াল আমেরিকা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 23, 2021 8:42 am|    Updated: January 24, 2021 10:22 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের সমর্থনে বক্তব্য রেখে পাকিস্তান ও চিনের উদ্বেগ বাড়ালেন নয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেন (Joe Biden)। প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর তাঁর প্রথম বক্তব্যে বিডেন বলেন, “ভারত হল আমেরিকার গুরুত্বপূর্ণ কৌশলগত অংশীদার। দু’দেশের সম্পর্ক মজবুত করতে দরকারি পদক্ষেপ করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।”

[আরও পড়ুন: লস্কর ও জইশের থেকে নজর ঘোরাতে পুরনো জঙ্গি সংগঠনগুলিকে সক্রিয় করছে পাকিস্তান!]

আগামী দিনে কেমন হবে ডেমোক্র্যাট পরিচালিত মার্কিন সরকারের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক? এ নিয়ে মার্কিন থিংক ট্যাংক ব্রুকিংস ইনস্টিটিউশন একটি শ্বেতপত্র প্রকাশ করেছে। সংস্থার কৌশলগত বিশেষজ্ঞ জোশুয়া হোয়াইট বলেছেন, “ভারত—মার্কিন সম্পর্ক আগামী দিনে আরও পারস্পরিক নির্ভরশীল ও সহযোগী হবে। ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস এ ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবেন। চিনা আগ্রাসনের মোকাবিলায় ভারতের উপরেই বেশি নির্ভরশীল হবে আমেরিকা। তিব্বত, হংকং, তাইওয়ানের স্বাধীনতাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন বিডেন। এই তিনটি জায়গার গণ আন্দোলনে ভারতের সক্রিয় সমর্থন দরকার। এছাড়া ইসলামিক স্টেট ও আল কায়দার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দুই দেশ তথ্য বিনিময় করে কাজ করবে। তেমনই পাক মদতপুষ্ট লস্কর ও জইশের মোকাবিলায় ভারতকে সবরকম সাহায্য করবেন মার্কিন সেনা ও গোয়েন্দারা। সন্ত্রাসবাদীদের ঘাঁটি, গতিবিধি, কাজকর্ম, চিনা সেনাদের অবস্থান, সেনা বিন্যাস এবং যুদ্ধ প্রস্তুতি নিয়ে ভারতকে সবরকম তথ্য দিয়ে সাহায্য কবে আমেরিকা। আগামী দুই দশক ধরে ভারত-মার্কিন সহযোগিতাই হবে এশিয়ার সবচেয়ে জরুরি বোঝাপড়া।” জোশুয়া বলেছেন, “জাতীয় স্বার্থেই ট্রাম্পের ভারতমুখী নীতি থেকে সরছে না বিডেন প্রশাসন।”

উল্লেখ্য, চিনকে (China) নজরে রেখে ভারতের সঙ্গে সামরিক সম্পর্ক মজবুত করছে ভারত। মার্কিন ফৌজের সঙ্গে এবার সামরিক মহড়ায় শক্তিপ্রদর্শন করছে ভারতের সাবমেরিন বিধ্বংসী বিমান পসাইডন (Poseidon-8I)। জানুয়ারি মাসের ১২ তারিখ থেকেই গুয়ামে শুরু হয়েছে ‘সি ড্রাগন’ মহড়া। প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত ওই মার্কিন ভূখণ্ডে বেশ কয়েকটি দেশের সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি দল উপস্থিত রয়েছে। জানা গিয়েছে, আমেরিকা ও ভারত ছাড়াও এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে জাপান, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে সাবমেরিন যুদ্ধের কৌশল আরও ঝালিয়ে নেওয়া। কীভাবে ডুবোজাহাজ থেকে প্রতিপক্ষের নৌবাহিনীর উপর হামলা চালানো হবে? কোন পদ্ধতিতে নিজেদের যুদ্ধজাহাজগুলিকে রক্ষা করা আরও সহজ হবে? এসব প্রশ্ন নিয়ে আলোচনা হয়েছে বিভিন্ন দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে। তারপর হাতেকলমে সেই কৌশল ঝালিয়ে দেখা হচ্ছে সমুদ্রের বুকে।

[আরও পড়ুন: WHO-এর করোনা ভ্যাকসিন প্রকল্পে যোগদান আমেরিকার, বড় পদক্ষেপ বিডেন প্রশাসনের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement