৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুক্রবার রাতে ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার বিস্তীর্ণ এলাকা। রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৭.১। কম্পনের উৎসস্থল উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় কের্ন প্রদেশের রিজক্রেস্ট শহর থেকে ১৮ কিলোমিটার দূরে। ১৯৯৯ সালের পর, গত ২০ বছরে এতবড় ভূমিকম্প হয়নি বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। এর আগে বৃহস্পতিবার সকালেও ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়া। রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৬.৪। তখন বিশেষজ্ঞরা জানিয়ে ছিলেন, গত দু’দশকের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড় ভূমিকম্প। ঠিক তার ৩৫ ঘণ্টার মধ্যে আরও বড় ভূমিকম্প হল একই জায়গায়। কম্পনটি ৪০ সেকেন্ডের মতো স্থায়ী ছিল বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন- ‘অ্যানাবেল’ আতঙ্কে হার্ট অ্যাটাক! থাইল্যান্ডে প্রেক্ষাগৃহেই মৃত্যু ব্রিটিশ নাগরিকের]

গত দুদিনে দুটি বড় ভূমিকম্পে কোনও মৃত্যুর ঘটনা না ঘটলেও ভেঙে পড়ছে বহুবাড়ি। ধ্বংসস্তূপের নিচে প্রচুর মানুষ চাপা পড়ে আছেন বলে জানা গিয়েছে। তারপর থেকে হাজারবার আফটার শকের জেরে বারবার কেঁপেছে ক্যালিফোর্নিয়া। কম্পন অনুভূত হয়েছে পার্শ্ববর্তী মেক্সিকো, লাস ভেগাস এবং চিকো পর্যন্ত।

earthquake, California

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বহু মানুষ ধ্বংসস্তূপে আটকে আছেন। গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভরতিও হয়েছেন বেশ কয়েকজন। ভূমিকম্পের পরেই রিজক্রেস্ট শহরে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন পুরসভার মেয়র। প্রশাসনের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলিও হাত লাগিয়েছে উদ্ধারকার্যে। তবে পরপর দুটি ভূমিকম্প ও লাগাতার আফটার শকের ফলে ব্যাহত হচ্ছে সেই কাজ। জনৈক ডনি মরিসন নামে এক ব্যক্তি বলেন, “ভূমিকম্পের পর থেকে জেগে আছি আমরা। বিছানার পাশে জুতো ও জামাকাপড় রেডি করে রেখেছিলাম। পরিস্থিতি খারাপ দেখলেই বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে আসতাম।” স্থানীয় লাইব্রেরির এক কর্মী কারেন লুহান বলেন, “লাইব্রেরি বন্ধ ছিল। এর জন্য আমরা ভগবানের কাছে কৃতজ্ঞ। চিন্তা করে দেখুন, লাইব্রেরির আলমারির নিচে যদি কিছু গরিব শিশু চাপা পড়ত তাহলে কী মর্মান্তিক হত।”

[আরও পড়ুন- সময়ের ফারাকেও বদলাল না দৃশ্য, একদা বাবা স্টিভের পোষ্য কুমির এখন ছেলের বশে]

বৃহস্পতিবার ভূমিকম্পের খবর পেয়ে টুইট করেছিলেন আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পও। জানিয়ে ছিলেন, সবাই ঠিক আছে। খুব বেশি কিছু ক্ষতি হয়নি। ক্যালিফোর্নিয়ার জরুরি বিভাগের মুখপাত্র ব্র্যাড আলেকজান্ডার জানিয়েছিলেন, রিজক্রেস্ট শহরে দমকলের বেশ কয়েকটি ইউনিট মোতায়েন রয়েছে। উদ্ধারকারী দলও কাজ করছে। বিভিন্ন জায়গায় রাস্তা ও বাড়িতে ফাটল ধরেছে। বেশ কিছু বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাও ঘটেছে। তবে ভূমিকম্পটি জনবসতি এলাকা থেকে দূরে হওয়ায় প্রাণহানি ঘটনা ঘটেনি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং