BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কফির কাপে লেখা ISIS, Starbucks-এ গিয়ে হেনস্তার শিকার মুসলিম মহিলা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 8, 2020 5:33 pm|    Updated: July 8, 2020 10:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের শিরোনামে আমেরিকার মিনিসোটা প্রদেশ। এবার বিদ্বেষের শিকার এক মুসলিম মহিলা। Starbucks-এ কফি খেতে গিয়ে চূড়ান্ত বিদ্বেষমূলক আচরণের শিকার হতে হল তাঁকে। অভিযোগ, যে কাপে তাঁকে কফি দেওয়া হয়েছিল সেটিতে ‘ISIS’ লেখা ছিল। ওই মহিলার অভিযোগ, নিজের ধর্মের জন্য তাঁকে এহেন আচরণের শিকার হতে হয়েছে।

[আরও পড়ুন: মৃত্যুদণ্ডের পুনর্বিবেচনা চান না কুলভূষণ, সন্দেহ উসকে দাবি পাকিস্তানের]

জানা গিয়েছে, জুলাই মাসের ১ তারিখ মিনিসোটা প্রদেশের রাজধানী সেন্ট পলসে বিখ্যাত মার্কিন কফি চেন Starbucks-এ এক কাপ গরম পানীয়র সন্ধানে গিয়েছিলেন আয়শা। সংবাদসংস্থা CNN-কে তিনি জানান, সেদিন করোনা মহামারীর জন্য তিনি মুখে মাস্ক পরেছিলেন। অর্ডার নেওয়ার সময় তিনি স্পষ্টভাবেই বেশ কয়েকবার নিজের নাম জানান। ফলে তাঁর নাম ভুল করার কোনও কারণ থাকতে পারে না। কিন্তু যখন তাঁর কাছে কফির পাত্রটি এল, সেখানে ISIS লেখা ছিল। আয়শা বলেন, “ওই লেখা দেখে আমার মনে মধ্যে তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। নিজেকে খুব ছোট মনে হয় আমার। আমি বিষয়টা ওই আউটলেটের ম্যানেজারের কাছে জানাই। কিন্তু সেই বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। যদিও আমাকে আমাকে আরও এক কাপ কফি ও ২৫ ডলারের একটি গিফট কার্ড দেওয়া হয়।”

এদিকে, এই ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে Starbucks-এর ওই আউটলেটটি। তারা স্পষ্ট করে দিয়েছে যে এই ভুল ইচ্ছাকৃত নয়। যদিও তাতে বরফ গলেনি। মিনিসোটায় মানবাধিকার পরিষদে এই মর্মে একটি অভিযোগ জানিয়েছেন আয়শা। সব মিলিয়ে ফের বৈষম্যের এহেন ঘটনায় শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। উল্লেখ্য, মিনিসোটার মিনিয়াপোলিস শহরেই পুলিশের হাঁটুর চাপে মৃত্যু হয় কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের। তারপরই প্রতিবাদের আগুনে জ্বলে উঠে আমেরিকার প্রায় সবগুলি প্রদেশ। অনেক ক্ষত্রেই হিংসাত্মক ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছায় যে হোয়াইট হাউসের গোপন বাঙ্কারে লুকোতে হয় মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। এহেন সঙ্কটে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি’র সুরক্ষায় ন্যাশনাল গার্ডের পাশপাশি ফৌজ মোতায়েন করার নির্দেশ দেন ট্রাম্প। যদিও চাপে পড়ে সেই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন তিনি। এবার ফের এমন ঘটনায় আগুনে ঘি পড়েছে বলেই মনে করছেন অনেকে।

[আরও পড়ুন: চিনের সঙ্গে যুদ্ধ বাঁধলে ভারতের পাশে থাকবে মার্কিন ফৌজ, ইঙ্গিত হোয়াইট হাউসের

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement