২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চন্দ্রযান-২ এর ধাক্কা ভারতবাসী যখন মেনে নিতে পারছে না। তখন আন্তর্জাতিক মহল থেকে সমর্থনের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। এবার চন্দ্রযান-২ এর যাত্রাপথের সাফল্য এবং চাঁদের মাটিতে ল্যান্ডার বিক্রমের অবতরণের চেষ্টার ভূয়সী প্রশংসা করল নাসা। ইসরোর পাশে দাঁড়িয়ে আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা জানিয়ে দিল, তারা ভবিষ্যতে ইসরোর সঙ্গে কাজ করতে চায়।

[আরও পড়ুন: ‘বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগের আপ্রাণ চেষ্টা চলছে’, হাল ছাড়েননি ইসরো চেয়ারম্যান]

শনিবার সন্ধে নাগাদ ইসরোর তরফে সরকারিভাবে বিবৃতি জারি করা হয়। যাতে বলা হল, “চন্দ্রযান অত্যন্ত জটিল একটা মিশন। ইসরোর অন্য সমস্ত মিশনের চেয়ে এটা প্রযুক্তিগতভাবে অনেকটাই উন্নত একটা মিশন। চন্দ্রযানের মাধ্যমে অর্বিটার, ল্যান্ডার আর রোভার একসঙ্গে এনে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অজানাকে জানার চেষ্টা করা হয়েছে। চন্দ্রযান মিশন শুরু হওয়ার পর থেকেই গোটা ভারতের পাশাপাশি গোটা বিশ্ব আমাদের অগ্রগতির উপর নজর রেখেছে। এটা একটা অভিনব প্রকল্প ছিল, যেটা কিনা চাঁদের শুধু একটা অংশ নয়, গোটা চাঁদটাকেই নতুন করে জানার চেষ্টা করেছে।”

[আরও পড়ুন: ‘এভাবেও ফিরে আসা যায়’, হাজারও ব্যর্থতা সামলে সাফল্যের আশায় বুক বাঁধছে ইসরো]

ইসরোর এই বিবৃতিকে ধরেই নিজেদের বিবৃতি দেয় নাসা। আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থার উৎসাহ বাড়ানোর কাজটিই করেছে। টুইটে নাসা বলছে,”মহাকাশ খুব জটিল জায়গা। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে চন্দ্রযান অবতরণের ইসরোর এই চেষ্টার প্রশংসা করছি। আপনারা আপনাদের এই যাত্রার মাধ্যমে আমাদের অনুপ্রাণিত করেছেন। আগামী দিনে একসঙ্গে কাজ করার সুযোগের অপেক্ষায় থাকলাম।” শুধু নাসা নয়, যে পাক সরকার ভারতের চন্দ্রযান অভিযানকে বারবার কটাক্ষ করছে, সেই দেশের এক মহাকাশ গবেষকও ইসরোর প্রশংসা করেছেন।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং