BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়ামে প্রথম ভারতীয় ট্রাস্টি নীতা আম্বানি

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 15, 2019 3:45 pm|    Updated: November 15, 2019 3:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় ১৫০ বছরের ইতিহাসে বদল। মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অফ আর্টের প্রথম ভারতীয় সাম্মানিক ট্রাস্টি হিসাবে নির্বাচিত হলেন নীতা আম্বানি। শিক্ষাবিদ, সমাজসেবী এবং ব্যবসায়ী নীতা আম্বানি সম্মানিত হওয়ায় ভারতের মুকুটে যুক্ত হল নয়া পালক।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় জাদুঘর নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম। এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির স্ত্রী নীতার সঙ্গে রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন ভারতীয় শিল্পকলা এবং সংস্কৃতি উন্নয়নের কাজ করছে। নীতার বিগত কয়েক বছর ধরে এই জাদুঘরের সঙ্গেও যোগাযোগ গড়ে উঠেছিল। ১২ নভেম্বর বোর্ড মিটিং হয়। তাতেই স্থির হয় মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অফ আর্টের প্রথম ভারতীয় সাম্মানিক ট্রাস্টি হিসাবে নীতা আম্বানি নির্বাচিত হচ্ছেন। আম্বানিজায়া নীতাকে বোর্ডে স্বাগত জানাতে পেরে আনন্দিত নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অফ আর্টের বোর্ড চেয়ারম্যান ড্যানিয়েল ব্রডস্কাই। তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন, “ভারতীয় শিল্প, সংস্কৃতিকে সংরক্ষণের জন্য নানা কাজ করেছেন নীতা আম্বানি। তিনি গোটা বিশ্বের সামনে ভারতীয় শিল্প-সংস্কৃতিকে তুলে ধরতে চান। তাঁর এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসাযোগ্য। তাই তাঁকে বোর্ডের সাম্মানিক ট্রাস্টি হিসাবে নির্বাচিত করে আমরা খুশি।”

Nita Ambani

বেশ কয়েক বছর ধরে মেট্রোপলিটন মিউজিয়ামের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি। তারপর যে এত বড় সম্মান মিলবে, তা যেন আগে কখনই ভাবেননি নীতা আম্বানি। নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়ামের ট্রাস্টি সদস্য নির্বাচিত হয়ে বেজায় খুশি আম্বানি ঘরনি। এমন আনন্দের দিনে পুরনো অভিজ্ঞতার কথা বারবার মনে পড়ছে তাঁর। তিনি বলেন, “ভারতের সংস্কৃতিকে বিশ্বের দরবারে আমি পৌঁছে দিতে চাই। এই সম্মান ভবিষ্যতে আরও ভাল কাজ করতে আমাকে সাহায্য করবে।”

[আরও পড়ুন: স্বামীর চাকরি হাতিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধার ছক, স্টেশন মাস্টার খুনে চাঞ্চল্যকর মোড়]

১৪৯ বছর পুরনো নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম। প্রায় পাঁচ হাজার বছরের পুরনো শিল্পকলাও স্থান পেয়েছে জাদুঘরে। দেশ-বিদেশের বহু মানুষকে মুগ্ধ করেছে নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম। বিশ্বের নানা প্রান্তের অনুদান আসে জাদুঘরে। ২০১৮ সালে ২ হাজার ৭৬৭ কোটি ৬৮ লক্ষ টাকা আসে জাদুঘরের তহবিলে। ২০১৭ সালে এই পরিমাণ ছিল আরও বেশি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement