৪ আশ্বিন  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Pegasus-এর জন্যই লক্ষ লক্ষ মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারেন, দাবি প্রস্তুতকারী সংস্থার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 24, 2021 7:08 pm|    Updated: July 24, 2021 7:08 pm

NSO Group defended itself by saying that millions of people around the world sleep well at night due to Pegasus | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে বিতর্কের জেরে ধাক্কা খাচ্ছে ভাবমূর্তি। দাবি উঠছে Pegasus-এর মতো সফটওয়্যার বা ম্যালওয়্যার যারা বানায়, সেই ধরনের সংস্থার বিরুদ্ধে তদন্ত হওয়া উচিত। সব মিলিয়ে রীতিমতো বিতর্কে Pegasus-এর প্রস্তুতকারী সংস্থা NSO গ্রুপ। আর এই বিতর্কের মুখে এবার আজব সাফাই গাইল তাঁরা। NSO গ্রুপের দাবি, বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারেন শুধু Pegasus-এর মতো প্রযুক্তির জন্যই। আমরা পৃথিবীকে নিরাপদ করে তোলার জন্য সাধ্যমতো কাজ করছি।

শনিবার এক বিবৃতিতে ইজরায়েলের এই তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাটি দাবি করেছে,”বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারছেন, নিরাপদে চলাফেরা করতে পারছেন শুধু Pegasus এবং এই ধরনের অন্য সফটওয়্যারের জন্যই। বিভিন্ন অ্যাপের এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশনের আড়ালে বিশ্বব্যাপী যে অপরাধ এবং সন্ত্রাসের জাল ছড়িয়েছে, তা সম্পর্কে তদন্ত করতে এবং সন্ত্রাস রুখতে আমরাই বিভিন্ন নিরাপত্তা এজেন্সিকে সাহায্য করছি।” NSO গ্রুপের যুক্তি, “আমরা এবং অন্য বেশ কয়েকটি সাইবার ইন্টেলিজেন্স কোম্পানি বিভিন্ন দেশের সরকারকে এই ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার করতে দিই কারণ, সামাজিক মাধ্যম বা ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপের আড়ালে যে অপরাধের জাল ছড়িয়ে পড়ছে তা নিয়ন্ত্রণ করার কোনও উপায় কারও কাছে নেই। আমরা আমাদের সাধ্যমতো চেষ্টা করছি, এই পৃথিবীকে আরও নিরাপদ করে তোলার।” Pegasus-কে ঘিরে যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে, তা নিয়ে সংস্থার সাফ যুক্তি, আমরা নিজেরা এই সফটওয়্যার ব্যবহারও করি না। এটার বিস্তারিত তথ্যও আমাদের হাতে নেই।

[আরও পড়ুন: ‘মেরুদণ্ডহীনতার উৎকৃষ্ট উদাহরণ’, টিকাকরণের গতি নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ Rahul-এর]

উল্লেখ্য পেগাসাস হচ্ছে ইজরায়েলের সংস্থা ‘NSO Group’-এর তৈরি একটি সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে ফোনে আড়ি পাতা যায় বা ফোন হ্যাক করা যায়। ফলে যে স্মার্টফোনটিকে নিশানা করা হয়েছে সেটির ভয়েস কল ও হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) ডেটা-সহ সমস্ত তথ্য হামলাকারীর হাতে চলে যায়। এই কাজটি এতটাই গোপনে হয় যে ফোনটির ব্যবহারকারী আক্রান্ত হওয়ার কথা জানতেই পারেন না। ফলে তাঁর অজান্তেই গোপন কথাবার্তা, তথ্য সমস্ত কিছু ফাঁস হয়ে যায়। বিশেষ করে, রাজনীতিবিদ, শিল্পপতি, সাংবাদিক ও কুটনীতিবিদের এই স্পাইওয়্যারের মাধ্যমে নিশানা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। Pegasus রিপোর্ট নিয়েই এই মুহূর্তে ভারতের পাশাপাশি গোটা বিশ্বই উত্তাল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

×