BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Coronavirus: ‘ওমিক্রন বিপজ্জনক, সাধারণ সর্দিকাশি ভাবলে ভুল হবে’, ফের সতর্ক করল WHO

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 13, 2022 11:05 am|    Updated: January 13, 2022 11:44 am

Omicron dangerous for the unvaccinated, warns WHO | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার অতি নয়া স্ট্রেন ওমিক্রন সংক্রামক হওয়ার পাশাপাশি বিপজ্জনকও। একে হালকাভাবে নিলে ভুল হবে। ফের সতর্ক করে দিলেন বিশ্ব স্বাস্থ‌্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়াসুস (Tedros Adhanom Ghebreyesus)। তাঁর বক্তব্য ডেল্টার থেকে কম হলেও ওমিক্রন বিপজ্জনক ভাইরাস। বিশেষ করে তাঁদের জন্য যারা করোনার টিকা নেননি।

ঘেব্রিয়াসুসের বক্তব্য, “এই ভাইরাসটি একেবারেই সোজা কিছু নয়। আর এটাকে হালকাভাবে নেওয়াও উচিত হবে না।” বিশ্ব স্বাস্থ‌্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল বলছেন,”ওমিক্রন ডেল্টার থেকে কম মারাত্মক বা যাদের টিকা নেওয়া হয়ে গিয়েছে তাঁদের জন্য কম ক্ষতিকারক। কিন্তু এটাও বিপজ্জনক ভাইরাস। এর সংক্রমণের ফলেও হাসপাতালে ভরতি হওয়ার বা মৃত্যুর ঝুঁকি থাকছেই।” WHO প্রধান বিশ্ববাসীকে সতর্ক করে বলেছেন, কোনওভাবেই এটাকে সাধারণ সর্দিকাশি বলে উপেক্ষা করা ঠিক হবে না।

[আরও পড়ুন: স্বস্তির সংকেত! আমেরিকা, ব্রিটেনে এবার শক্তি হারাবে ওমিক্রন, দাবি বিশেষজ্ঞদের]

ডেল্টার (Delta) যেমন বৃদ্ধি হয়েছিল এবার ওমিক্রনের (Omicron) ধাক্কায় তেমনই এক সুনামির দিকে এগিয়ে চলেছে গোটা বিশ্ব। সম্প্রতি এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ‌্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল। তাঁর দাবি ছিল, যে হারে ওমিক্রন ছড়াচ্ছে তাতে আগামী দিনে গোটা বিশ্বের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়তে পারে। কিন্তু এর আগে অনেক দেশকেই দেখা গিয়েছে ওমিক্রনকে ততটা গুরুত্ব না দিতে। সেই সব দেশকে এদিন সাবধান করে দিলেন ঘেব্রিয়াসুস।

[আরও পড়ুন: micorn: বুস্টারে হবে না! করোনার বিরুদ্ধে লড়তে প্রয়োজন নতুন ভ্যাকসিন, বলছে WHO]

WHO’র বক্তব্য, ইতিমধ্যেই করোনার গোটা পাঁচেক স্ট্রেন বিশ্বজুড়ে প্রভাব ফেলেছে। সেগুলি হল আলফা, বিটা, গামা, ডেল্টা আর ওমিক্রন (Omicron)। এই মুহূর্তে বিশ্বজুড়ে ওমিক্রন সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। কিন্তু এখানেই শেষ নয়। আগামী দিনে এইভাবেই করোনার নতুন নতুন স্ট্রেন আঘাত হানবে। যা প্রতিরোধ করার একমাত্র উপায় টিকা। WHO প্রধান বলছেন, যেভাবেই হোক টিকার উৎপাদন বাড়াতে হবে। এবং সমস্ত প্রতিকুলতাকে কাটিয়ে ২০২২ এর মাঝামাঝি পর্যন্ত বিশ্বের সব দেশের ৭০ শতাংশ জনতাকে টিকা দিতেই হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে