২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

শ্লীলতাহানি করেছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, মার্কিন সাংবাদিকের বিস্ফোরক অভিযোগে উত্তাল পাকিস্তান

Published by: Sulaya Singha |    Posted: June 6, 2020 6:00 pm|    Updated: June 7, 2020 8:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রীর হাতে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছিলেন। ধর্ষণ করেছিলেন প্রাক্তন অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রী। আমেরিকান ব্লগার সিন্থিয়া ডি রিচির এমনই বিস্ফোরক অভিযোগে উত্তাল পাকিস্তানের রাজনৈতিক মহল। যদিও সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী। তবে এখনও এ নিয়ে মুখ খোলেননি প্রাক্তন মন্ত্রী।

দীর্ঘদিন ধরেই পাক রাজনীতি ও কূটনীতি নিয়ে সাংবাদিকতা করছেন সিন্থিয়া। শুক্রবার তিনি টুইটারে কাঠগড়ায় তোলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রী রহমান মালিককে। লেখেন, ২০১১ সালে মন্ত্রীর বাসভবনে তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। ভেবেছিলেন তাঁর ভিসা সংক্রান্ত কোনও বৈঠক আছে। কিন্তু গিয়ে বুঝতে পারেন, তেমন কিছুই নেই। তাঁকে গন্ধ শুকিয়ে দেওয়া হয় কিংবা পানীয়ে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খাইয়ে দেওয়া হয়। তারপরই ঘটে ধর্ষণের ঘটনা। “সেই ঘটনায় মুখ বন্ধই রেখেছিলাম। কিন্তু পাকিস্তান পিপলস পার্টির তরফে কে আমাকে সাহায্য করবে? জানি না। এমনকী সম্প্রতি আমার পরিবারকেও নিশানা করা হয়েছে। তবে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য আমিও তৈরি।” লেখেন সিন্থিয়া।

[আরও পড়ুন: করোনায় মৃত দাউদ ইব্রাহিম! করাচির হাসপাতালে তৎপর পাক সেনা]

এখানেই শেষ নয়, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানির বিরুদ্ধেও শ্লীলতাহানির অভিযোগ তোলেন তিনি। জানান, ইসলামাবাদে রাষ্ট্রপতি ভবনে শ্লীলতাহানির শিকার হন তিনি। যৌন হেনস্তার অভিযোগ তোলেন তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মাখদুম শাহবুদ্দিনের বিরুদ্ধেও। তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গিলানি। উলটে সিন্থিয়াকে একহাত নিয়ে বলেন, “রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার জন্য রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে থাকতেই পারি। তাই বলে এমন কাজ করার কথা চিন্তাও করতে পারি না। কখনও কোনও প্রধানমন্ত্রী এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন? রাজনৈতিক নেতাদের এভাবে কাঠগড়ায় তোলার অধিকার ওঁকে (সিন্থিয়া) কে দিয়েছে?” বিরোধী নেতাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য সিন্থিয়ার লজ্জা হওয়া উচিত বলেও দাবি তাঁর।

তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি রহমান মালিক। পাকিস্তানের মার্কিন দূতাবাসে এ নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে। বিষয়টি নিয়ে বিতর্কের আর একটি কারণ হল, সিন্থিয়া এখনও পর্যন্ত কারও বিরুদ্ধেই পুলিশি অভিযোগ জানাননি। গোটা বিষয়টাই সাংবাদিক ও সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেছেন।

[আরও পড়ুন: আফগান পুলিশের কনভয়ে হামলার জের, তালিবান ঘাঁটিতে ফের জোড়া বিমান হানা মার্কিন সেনার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement