২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বমঞ্চে মুখ পুড়লেও শিক্ষা হয়নি পাকিস্তানের। আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতে (আইসিজে) বেনজির ধাক্কার পরও  কুলভূষণ মামলায় জয়ের দাবি করল পড়শি দেশ।

[আরও পড়ুন: ২৬/১১ জঙ্গি হামলার মাস্টার মাইন্ড হাফিজ সইদকে গ্রেপ্তার করল পাক পুলিশ]

কুলভূষণ যাদবের মৃত্যুদণ্ড রদ করে পুনর্বিচার করা উচিত পাকিস্তানের। বুধবার এমনটাই পর্যবেক্ষণ ছিল আন্তর্জাতিক আদালতের। শুধু তাই নয়, কনস্যুলার অ্যাকসেস না দিয়ে পাকিস্তান ভিয়েনা চুক্তি ভঙ্গ করেছে বলেও পর্যবেক্ষণ আন্তর্জাতিক আদালতের ১০ সদস্যের বিচারপতির প্যানেলের। দ্য হেগ শহরের পিস প্যালেসে জুরি বোর্ডের শীর্ষ বিচারপতি আবদুল কোয়াই আহমেদ ইউসুফ এই মামলার রায় ঘোষণা করেন। ১৫-১ ভোট লজ্জার হার হয় পাকিস্তানের। সে দেশটির অধিকাংশ অভিযোগই উড়িয়ে দেয় আদালত। পাক সেনা আদালতে নয়, কুলভূষণের বিচার সাধারণ আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই হওয়া উচিত বলে মত দেন বিচারপতি। তবে এই রায়ের পরও কিন্তু সুর বদল হয়নি পাকিস্তানের। ইসলামাবাদের দাবি, যেহেতু কুলভূষণ যাদবকে মুক্তির নির্দেশ দেয়নি আন্তর্জাতিক আদালত, তাই জয় হয়েছে পাকিস্তানেরই। পাক বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, সন্ত্রাসবাদ ও নাশকতায় অভিযুক্ত ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন অফিসার কুলভূষণ যাদবের মামলাটিতে আইন মেনেই পদক্ষেপ করবে পাকিস্তান।

বিতর্ক উসকে পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী শিরিন মাজারি বলেন,”আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতে জয় হয়েছে পাকিস্তানের। শুধুমাত্র কনসুলার এক্সেস ছাড়া সব ক্ষেত্রেই বাজিমাত করেছে পাকিস্তান। কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড বাতিল করা হয়নি, তা সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে।” বিশ্লেষকরা মনে করছেন, আন্তর্জাতিক মঞ্চে ধাক্কা খেলেও ফের বিচারের নামে কুলভূষণকে হেনস্তা করবে পাকিস্তান। তবে ভারত কনসুলার এক্সেস পাওয়ায় প্রাক্তন নৌসেনা কর্মীকে মুক্ত করার পথ কিছুটা সুগম হয়েছে।উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৩ মার্চ বালোচিস্তান থেকে কুলভূষণকে গ্রেপ্তার করে পাক সেনা। যদিও অভিযোগ, ইরান থেকে অপহরণ করা হয় ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন আধিকারিককে। ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থার সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই কুলভূষণ যাদবের বলেও আগেই জানিয়েছে ভারত।      

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং