১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভারতের নেতৃত্বে আফগানিস্তান নিয়ে রাষ্ট্রসংঘের বৈঠকে ডাক না পেয়ে ক্ষুব্ধ পাকিস্তান

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 8, 2021 11:13 am|    Updated: August 8, 2021 1:25 pm

Pakistan issues statement on India's snub at UNSC meeting on Afghanistan। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের সভাপতিত্বে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে (UNSC) ডাক পায়নি পাকিস্তান (Pakistan)। ১৫ সদস্যের কাউন্সিলের বৈঠকের বিষয় ছিল আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি। কিন্তু সেই আলোচনায় আফগানিস্তানের (Afghanistan) ‘নিকটতম প্রতিবেশী’কে কেন ডাকা হল না তা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করল পাকিস্তান। সেদেশের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে এক বিবৃতি প্রকাশ করে এই বিষয়ে ক্ষোভপ্রকাশ করেছে।

এদিকে বৈঠকে ভারত অভিযোগের আঙুল তুলেছে পাকিস্তানের দিকেই। যেভাবে পাকিস্তান তালিবানের মতো অসংখ্য জঙ্গি গোষ্ঠীর ‘স্বর্গ’ হয়ে উঠেছে, তার তীব্র বিরোধিতা করেছে নয়াদিল্লি। রাষ্ট্রসংঘে নিযুক্ত ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তিরুমূর্তি জানিয়েছেন, ”আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে জঙ্গিদের নিরাপদ অভয়ারণ্যকে অবিলম্বে ধ্বংস করতে হবে।” তিনি পরিষ্কার বলে দেন, আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলিতে সন্ত্রাসবাদ চলতে দেওয়া চলবে না। নাম না করলেও বুঝতে সমস্যা হয় না তিনি পাকিস্তানকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন।

[আরও পড়ুন: আফগানিস্তান দখল হলে কি অন্য দেশেও হাত বাড়াবে Taliban? সন্ত্রস্ত পড়শি দেশগুলি]

বৈঠকে আমন্ত্রণ না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ পাকিস্তান। তাদের মতে, যেহেতু তারা আফগানিস্তানের নিকটতম প্রতিবেশী, তাই ওই দেশে শান্তি ফেরাতে গেলে পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা করা জরুরি ছিল। উল্লেখ্য, বৈঠকে কেবল ভারত নয়। আফগানিস্তানও পাকিস্তানকে দায়ী করেছে তালিবানদের সাহায্য করার জন্য।

এক মাসের জন্য রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের (UNSC) সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছে ভারত। ২০২১-২২ সালে প্রথমবারের জন্য এই দায়িত্ব নিল ভারত। ফ্রান্সের হাত থেকে ১ আগস্ট ভারত রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সভাপতিত্বের দায়িত্ব গ্রহণ করেছে। এই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদে ভারতের কার্যকাল শুরু হয়েছে ২ আগস্ট থেকে। তারপরই টি এস তিরুমূর্তি জানিয়েছিলেন যে ভারত কখনওই দায়িত্বপালনে ভয় পায় না। বরাবরই সন্ত্রাসবাদ-সহ একাধিক ইস্যুতে সক্রিয় ভারত। প্রথম থেকেই দেশের প্রয়োজন অনুযায়ী অগ্রাধিকার বিষয়গুলিতে মনোনিবেশ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ভয়াবহ হয়ে উঠছে পরিস্থিতি, নাগরিকদের Afghanistan ছাড়ার নির্দেশ দিল ব্রিটেন]

যেহেতু ভারত এক মাসের জন্য এই দায়িত্ব গ্রহণ করছে সেই কারণে বাকি সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করেই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। সংযম আর আলোচনার মাধ্যমেই একাধিক সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজবে বলেও ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে