১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  অমিত শাহ যেখানে ‘এক রাষ্ট্র, এক ভাষা’ নিয়ে রব তুলেছেন, সেখানে আমেরিকায় গিয়ে অন্তত আটটি আঞ্চলিক ভাষায় বক্তৃতা দিয়ে এলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। যার মধ্যে অন্যতম ছিল পাঞ্জাবি, তামিল, গুজরাটি এবং বাংলা। আমেরিকার হিউস্টনে ‘হাউডি মোদি’ অনুষ্ঠানে প্রবাসী ভারতীয়দের কুশলবার্তা দিতে গিয়ে অন্য ভাষার পাশাপাশি বাংলাতেও প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতে সব খুব ভাল আছে।’ মোদির এই বক্তব্যের পর গোটা প্রেক্ষাগৃহ ফেটে পড়ে করতালিতে।

[ আরও পড়ুন: মোদিতেই পূর্ণ আস্থা ট্রাম্পের, হিউস্টনের মঞ্চে একে অপরকে ‘প্রিয় বন্ধু’ বলে সম্বোধন ]

আমেরিকার এনআরজি স্টেডিয়ামে রবিবার অনুষ্ঠিত হয় ‘হাউডি মোদি’। এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও প্রায় ৫০ হাজার প্রবাসী ভারতীয়। সেখানে ইন্দো-আমেরিকান দর্শকের সামনে দেশের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, অনুষ্ঠানের নাম ‘হাউডি মোদি’। অর্থাৎ ‘কেমন আছ মোদি?’ উত্তরটাও দেন প্রধানমন্ত্রী নিজেই। আর তখনই পরপর আটটি আঞ্চলিক ভাষার সাহায্য নেন। তিনি বলেন, ‘ভারতে সব আচ্ছা হ্যায়। সব চাঙ্গাসি। মজা মাছে! অন্তা বাগুম্বি। এল্লা চেন্না গ্রে। এল্লাম সওকিয়াম। সর্বছান চাল্লায়ে। সব খুব ভাল। সবু ভাল্লাছি।’ এরপর বলেন, ‘আমেরিকার বন্ধুরা ভাবছেন, আমি কী বলছি? প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, আমি বললাম- এভরিথিং ইজ ফাইন।’

[ আরও পড়ুন: হীরাবেনের টিপসেই মেনু, হিউস্টনে মায়ের রান্নার স্বাদ পেলেন প্রধানমন্ত্রী ]

এরপর মোদি বলেন, ভারতে ভাষা হল সংস্কৃতির পরিচায়ক। এদেশে ভাষার বৈচিত্র থাকা সত্ত্বেও ভাষা কখনও অন্তরায় হয়ে ওঠেনি। যুগ যুগ ধরে ভারতে বহু ভাষা, বহু বুলি সহাবস্থান করছে। ভিন্ন পথ, পুজো পদ্ধতি, আঞ্চলিক রীতিনীতি, বেশভূষাও ভারতীয় সংস্কৃতিরই অঙ্গ। আর এগুলোই বিশ্বের কাছে ভারততে স্বমহিমায় সুপ্রতিষ্ঠিত করেছে। এদিনের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মাতৃভাষার উপর জোর দেওয়ার কথাও বলেন। জানান, মাতৃভাষার ব্যবহার আরও বাড়াতে হবে। আর এর পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে জোর চর্চা। কেউ বলছে, মোদি নিজের ইমেজ ঠিক রাখতে কি এমন কথা বললেন? আবার কারও মত, মেদির সায় না থাকলে অমিত শাহ কি আর ‘এক রাষ্ট্র, এক ভাষা’র কথা বলতে পারতেন? এবার বিদেশে গিয়ে মোদি মাতৃভাষার আবেগ বুঝতে পেরেছেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং