১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ফের রানির প্রতিনিধি যুবরাজ, রোয়ান্ডা গণহত্যার সাক্ষীদের সঙ্গে দেখা করলেন চার্লস

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: June 23, 2022 12:49 pm|    Updated: June 23, 2022 12:49 pm

Prince Charles visits Rwanda to attend Commonwealth Summit as representative of Queen | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ব্রিটেনের রানির প্রতিনিধিত্ব করলেন তাঁর পুত্র যুবরাজ চার্লস (Prince Charles)। কমনওয়েলথের প্রধান হিসাবে রানির প্রতিনিধি হয়ে রোয়ান্ডায় গিয়েছেন যুবরাজ। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন যুবরানি ক্যামিলাও। ২০২২ সালের কমনওয়েলথ সামিট আয়োজন করেছে রোয়ান্ডা। সেখানে যোগ দিতেই রোয়ান্ডা সফরে গিয়েছেন তাঁরা।  সফরের প্রথমদিনে রোয়ান্ডা গণহত্যার প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে দেখা করেছেন তাঁরা। যুবরাজ জানিয়েছেন, সামিটে পরিবেশ সচেতনতা এবং যুবসমাজের কর্মসংস্থানের বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

১৯৯৪ সালে সংখ্যালঘু টুটসিদের উপরে হামলা চালিয়েছিল স্থানীয় হুটু সম্প্রদায়। একশো দিনের মধ্যে সাড়ে ছয় লক্ষ টুটসিদের হত্যা করা হয়েছিল।  সেই ঘটনায় মৃতদের সমাধিস্থল পরিদর্শন করেছেন যুরবাজ ও যুবরানি। গণহত্যায় নিহতদের সম্মানে তৈরি স্মৃতিসৌধেও যান তাঁরা। প্রথমবারের মতো রোয়ান্ডায় (Rwanda) সফর করছেন ব্রিটিশ রাজপরিবারের কোনও সদস্য। বেশ কয়েকবার মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে রোয়ান্ডার প্রেসিডেন্ট পল কাগামের বিরুদ্ধে। এমতাবস্থায় বেশ কিছু সদস্য দেশ দাবি করেছিল, রোয়ান্ডা থেকে কমনওয়েলথ সামিট সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হোক। তবে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করেছেন রাজ দম্পতি। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও (Boris Johnson) এই সামিটে যোগ দেবেন বলে জানিয়েছেন। প্রসঙ্গত, কিছুদিনে আগেই ইংল্যান্ডে আশ্রয়প্রার্থীদের রোয়ান্ডাতে পাঠিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ব্রিটিশ সরকার। ঘনিষ্ঠ মহলে এই পদক্ষেপের নিন্দা করেছিলেন যুবরাজ চার্লস।

[আরও পড়ুন: আগ্রাসী চিনের উপর চাপ বাড়াতে তিব্বতী অস্ত্রে শান আমেরিকার]

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই সংসদের অধিবেশন শুরুর ভাষণ দেওয়ার সময়েও রানির প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন সিংহাসনের উত্তরাধিকারী। ব্রিটেনের সংবিধান অনুসারে, পার্লামেন্টের অধিবেশন তখনই হতে পারে যখন রাজা বা রানি তাঁদের ডাকবেন। চিরাচরিত প্রথা যেন মেনে চলা হয়, সেই কারণেই প্রতিনিধি পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল রাজপরিবারের তরফ থেকে। সাংসদদের উদ্দেশ্যে চার্লস বলেন, “মাননীয়া রানির সরকার চায়, অর্থনীতির বিকাশ হোক। শক্তপোক্ত অর্থনীতি গড়ে তোলার মাধ্যমে দেশের মানুষের জীবনযাত্রার খরচ কমানোই রানির মূল উদ্দেশ্য।”

বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ রয়েছেন রানি। যদিও সিংহাসনে বসার সত্তর বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত সব অনুষ্ঠানেই দেখা গিয়েছিল তাঁকে। কিন্তু বেশ কয়েকটি বিদেশ সফরে রানির প্রতিনিধিত্ব করছেন যুবরাজ চার্লস। করোনার কারণে প্রায় চার বছর পরে বসতে চলেছে কমনওয়েলথ সামিটের আসর। সেখানে রানির অনুপস্থিতি নিয়েও চর্চা চলছে বিশেষজ্ঞদের মধ্যে। 

 

[আরও পড়ুন: আমেরিকায় ফের বন্দুকবাজের হামলা, চার্চ-স্কুল-মিউজিক কনসার্টের পর এবার ট্রেনে শুটআউট

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে