BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

দিল্লি হিংসার প্রতিবাদ ইউরোপের ১৬ দেশে, মিছিল-গান-কবিতায় আন্দোলনে প্রবাসীরা

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 2, 2020 12:31 pm|    Updated: March 2, 2020 12:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: CAA’র পর এবার দিল্লির হিংসার প্রতিবাদে সরব প্রবাসী ভারতীয়রা। দেশের রাজধানীতে চলা হিংসার প্রতিবাদে সপ্তাহান্তে ইউরোপের ১৬টি দেশে বিক্ষোভ দেখালেন তাঁরা। অশান্তিতে মদতদাতাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে সরব হয়েছেন প্রবাসী নাগরিকরা। একইসঙ্গে হিংসায় মৃতদের পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাসও দিয়েছেন তাঁরা। শনিবার থেকে প্যারিস, বার্লিন, দি হেগ, ব্রাসেলন, স্টকহোম-সহ ইউরোপের একাধিক শহরে বিক্ষোভ হয়। কোথাও প্রতিবাদীরা ভারতীয় দূতাবাসের বাইরে অবস্থান বিক্ষে্াভ দেখান। কোথাও আবার দূতাবাসের বাইরে ফুল রেখেও মৃতদের আত্মার শান্তিকামনা করেন। তবে গোটা প্রক্রিয়াটিই হয় শান্তিপূর্ণভাবে। প্রসঙ্গত, CAA কার্যকর করার বিরুদ্ধে বিদেশে আন্দোলনে নেমেছিলেন প্রবাসীরা। এবার দিল্লির হিংসার পরও একইভাবে আন্দোলনে নামলেন তাঁরা।

২২ ফেব্রুয়ারি থেকে উত্তর-পূর্ব দিল্লির জাফরাবাদ এলাকায় CAA বিরোধী সমর্থকরা আন্দোলন শুরু করে। সেই বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে অশান্তি বাঁধে। দ্রুত সেই হিংসা ছড়িয়ে পড়ে উত্তর-পূর্ব দিল্লির মউজপুর, গোকুলপুরি, ভজনপুরা-সহ একাধিক এলাকায়। পাথরের ঘায়ে, গুলির আঘাতে জখম হন বহু মানুষ। ঘরছাড়া হয় অনেকে। পাঁচদিন পর পরস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। উপদ্রুত এলাকায় শান্তি ফেরানোর চেষ্টা চলছে।

[আরও পড়ুন : চিনে দূষণ কমাল করোনা, নাসার ছবিতে মিলল চমকপ্রদ তথ্য  ]

দিল্লিতে চলা হিংসার প্রতিবাদে বার্লিনে ভারতীয় দূতাবাস পর্যন্ত মিছিল করেন প্রবাসীরা। পুলিশের অত্যাচার এবং সরকারের নিষ্ক্রিয়তার বিরুদ্ধে স্লোগান তোলেন তাঁরা। মিছিল শেষে মৃতদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে ভারতীয় দূতাবাসের মূল ফটকের পাশে ফুল সাজিয়ে দেন। বেলজিয়ামে খারাপ আবহাওয়াকে উড়িয়ে দিয়ে প্রতিবাদে সামিল হন প্রবাসী ভারতীয়রা। গ্লাসগোতে গান গেয়ে প্রতিবাদ জানান প্রবাসীরা। নেদারল্যান্ডে ইংরেজি ও হিন্দিতে স্লোগান দেওয়া হয়। কবিতা ও বক্তৃতার মাধ্যমে শাহিনবাগের আন্দোলনকারীদের পাশে দাঁড়ান তাঁরা। আবার প্যারিসে ভারতীয় দূতাবাসের কাছে সাদা ফুল রেখে প্রতিবাদ জানানো হয়। পালন করা হয় এক মিনিটের নীরবতাও। প্রসঙ্গত, ইউরোপে সাদা ফুল একনায়কতন্ত্রের বিরোধিতায় ব্যবহার করা হয়। কোথাও কোথাও প্রতিবাদীরা কালো পোশাক পরে বিক্ষোভ দেখান। জাতি-ধর্ম-বর্ণ-ভাষা নির্বিশেষে সকল প্রবাসী ভারতীয়দের একজোট করতে চা বিলি করা হয়। তবে বিদেশে প্রবাসী ভারতীয়দের এহেন বিক্ষোভ কেন্দ্রকে যে চাপে রাখবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

[আরও পড়ুন : করোনা আক্রান্ত পোপ ফ্রান্সিসও! পরপর ধর্মীয় অনুষ্ঠান বাতিলে জোরদার জল্পনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement