BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ঝিলাম নদীতে চিনের বাঁধ তৈরির বিরুদ্ধে প্রবল বিক্ষোভ, উত্তাল পাক অধিকৃত কাশ্মীর

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: September 8, 2020 12:15 pm|    Updated: September 8, 2020 12:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীরে ভারত সরকার মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে বলে প্রতিদিনই অভিযোগ জানায় পাকিস্তান। আন্তর্জাতিক মহলের কাছে নয়াদিল্লির বদনাম করার চেষ্টা করে। কিছুদিন আগে এই বিষয়ে সাহায্য করেনি বলে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে মুখ খুলে বিপাকে পড়েন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। এর জেরে ইসালামাবাদের সঙ্গে থাকা তেল চুক্তি বাতিল করে রিয়াধ। ধার দেওয়া টাকাও ফেরত চায়। তবু কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের বদনাম করার চেষ্টা এখনও ছাড়েনি ইমরানের সরকার। চিনের মদতে তুরস্ককে সঙ্গী করে কুৎসা ছড়ানোর চেষ্টা করছে। এর মাঝেই ধরা পড়ল পাকিস্তানের আসল স্বরূপ। চিনের মদতে কীভাবে তারা অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষের উপর অত্যাচার চালাচ্ছে তার জ্বলন্ত প্রমাণ পাওয়া গেল।

দীর্ঘদিন ধরেই চিনের মদতে নীলম-ঝিলাম নদীর উপর বাঁধ (dam) তৈরির চেষ্টা করছে পাকিস্তান। কিন্তু, এর ফলে ওই এলাকার ভৌগালিক অবস্থানের পরিবর্তন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অর্থনীতিও পুরো ভেঙে পড়বে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। এই বিষয়ে তাঁরা বারবার প্রতিবাদও জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে। কিন্তু, ইমরানের সরকার তাতে গুরুত্ব দিতে নারাজ। বরং এই পরিকাঠামোর তৈরির বিরোধিতা যাঁরা করছেন তাঁদের গুম খুন করা হচ্ছে বলেই অভিযোগ। ফলে মাঝে মাঝে ইসলামাবাদের এই অমানুষিক সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখান পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষ। সোমবার রাতেও সেই একই ছবি ধরা পড়ল।

[আরও পড়ুন: ‘মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পই আমার বাবা’, চাঞ্চল্যকর দাবি পাকিস্তানি মহিলার]

পাকিস্তান সরকারের ঘৃণ্য চক্রান্তের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখালেন অধিকৃত কাশ্মীরের মুজাফ্ফরাবাদ (Muzaffarabad) শহরের প্রচুর মানুষ। রাতের অন্ধকারকে দূরে সরিয়ে জ্বলন্ত মশাল ও টর্চ হাতে স্লোগান তুললেন ইমরানের প্রশাসনের অপশাসনের বিরুদ্ধে। হাজারের বেশি মানুষের কন্ঠে শোনা গেল, ‘নদী বাঁচাও, মুজাফ্ফরাবাদ বাঁচাও’, ‘নীলম-ঝিলাম বইতে দাও, আমাদের বাঁচাতে দাও’-এর মতো স্লোগান।

[আরও পড়ুন: অপেক্ষার অবসান, সাধারণ নাগরিকদের জন্য ‘স্পুটনিক ফাইভ’ বাজারে আনল রাশিয়া]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement