BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চলতি সপ্তাহেই হয়তো সাধারণের হাতের নাগালে Sputnik V, দাবি রাশিয়ান সংবাদমাধ্যমের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 6, 2020 9:52 pm|    Updated: September 6, 2020 9:52 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা টিকার প্রাথমিক পর্যায়ের ট্রায়ালে অ্যান্টিবডি তৈরি করতে সফল রাশিয়ার ‘স্পুটনিক ফাইভ’ (Sputnik V)। শুক্রবার বিখ্যাত বিজ্ঞান পত্রিকা ‘দ্য ল্যানসেট’-এ প্রকাশিত এই টিকার ট্রায়াল রিপোর্টে তেমনটাই উল্লেখ রয়েছে। আর তারপরই শোনা গেল, চলতি সপ্তাহেই নাকি জনসাধারণের হাতের নালাগে চলে আসবে এই ভ্যাকসিন।

কোনও নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই টিকা তৈরির ইঁদুরদৌড়ে নিজের ক্ষমতা প্রকাশ করতে চাইছে রাশিয়া। এই বদনামই জুটেছিল পুতিনের দেশের। ল্যানসেটে (The Lancet) প্রকাশিত রিপোর্টে সেই বদনাম অনেকটাই ঘুচল বলেই মত একদল বিশেষজ্ঞের। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রক এবং আরডিআইএফ (রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড)-এর সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে গামালিয়া সায়েন্টিফিক রিসার্চ ইনস্টিটিউট অফ এপিডেমিয়োলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি। রাশিয়ার (Russia) প্রথম উৎক্ষেপিত কৃত্রিম উপগ্রহের নামেই ভ্যাকসিনের নাম রাখা হয়েছে ‘স্পুটনিক ফাইভ’। এবার প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে তা পৌঁছে যেতে চলেছে জনসাধারণের কাছে। রাশিয়ার একটি সংবাদ সংস্থার দাবি, এক টিভি চ্যানেলে রাশিয়ান অ্যাকাডেমি অফ সায়েন্সেস-এর অন্যতম সদস্য ডেনিস জানিয়েছেন, চলতি সপ্তাহেই হয়তো সাধারণের জন্য ভ্যাকসিনের একটি ব্যাজ দেওয়া হবে।

[আরও পড়ুন: বার্মিংহামে দুষ্কৃতীর তাণ্ডবে আহত বহু, ‘বড়সড় ঘটনা’ বলে ব্যাখ্যা পুলিশের]

তিনি আরও জানান, নাগরিকদের ব্যবহারের জন্য ভ্যাকসিনের ব্যাজ দেওয়ার ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্টি প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে এগোতে হবে। গুণগত মান পরীক্ষার পরই সেগুলি দেওয়ার অনুমতি মিলবে। আশা করা হচ্ছে, আগামী ১০ থেকে ১৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই সেই অনুমতি মিলবে। আর তারপর থেকেই ধীরে ধীরে টিকাকরণের প্রক্রিয়া চালু হওয়ার সম্ভাবনা। তবে কীভাবে ভ্যাকসিনের বন্টন হবে, তা পুরোটাই ঠিক করতে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

এরইমধ্যে আবার ট্রায়ালের পর নাকি ইতিমধ্যেই মস্কোর তিনটি ক্লিনিকে পৌঁছে গিয়েছে কোভিড ভ্যাকসিনের প্রথম ব্যাজ। পরীক্ষানিরীক্ষার পরই টিকাকরণ শুরু হওয়ার কথা। অর্থাৎ করোনা ভ্যাকসিনের প্রয়োগ যে এখন কার্যত সময়ের অপেক্ষা, তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন: ‘চিন রবীন্দ্রনাথকে ডরায় না, ভারত PUBG-কে ভয় পাচ্ছে কেন?’ আজব যুক্তি বেজিংয়ের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement