৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ও ৩৫এ ধারা প্রত্যাহারের বিরুদ্ধে গলা ফাটালেও, আন্তর্জাতিক মহলের কোনও সহযোগিতা পায়নি পাকিস্তান৷ কাঁদুনি গেয়ে চিনের সহমর্মিতা মিললেও কার্যত একঘরে হয়ে গিয়েছে ইসলামাবাদ৷ এই পরিস্থিতিতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ভারতের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে দেখা যাচ্ছে হতাশ পাক নাগরিকরা৷ শুক্রবার যে চিত্র ধরা পড়ল দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিওলেও৷ সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও সর্বোপরি ভারতকে নিশানা করলেন তারা৷ ঘটনাচক্রে তখন সেখানেই উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেত্রী সাজিয়া ইলমি৷ যিনি পাক নাগরিকদের নক্কারজনক বিক্ষোভের বিরোধিতা করেন৷ দেশ ও প্রধানমন্ত্রীর সম্মান রক্ষার্থে রুখে দাঁড়ান৷

[ আরও পড়ুন: বিয়েবাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ, লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা ]

জানা গিয়েছে, গ্লোবাল সিটিজেন ফোরামের প্রতিনিধি হিসেবে ইউনাইটেড পিস ফেডারেশন কনফারেন্সে যোগ দিতে সিওল গিয়েছিলেন আরএসএস নেত্রী সাজিয়া ইলমি এবং আরও দুই নেতা৷ সমাবেশ শেষে দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসে যান তাঁরা৷ এবং সেখানেই পাক পতাকা হাতে নিয়ে একদল মানুষকে বিক্ষোভ দেখাতে দেখেন তাঁরা৷ পরে সংবাদ সংস্থা এএনআইকে সাজিয়া জানিয়েছেন, ‘‘হোটেলে ফেরার পথে আমরা দেখতে পাই, পাকিস্তানের পতাকা হাতে একদল লোক রাস্তায় জমায়েত করেছে৷ এবং ভারত ও আমাদের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছে। অনেক মানুষ ভিড় করে তাদের দেখছে। আমাদের মনে হয়েছিল, এটা আমাদের কর্তব্য যে, তাদের এই কাজের বিরোধিতা করা৷ এবং দেশ ও প্রধানমন্ত্রীর মান বাঁচানো। তাদের বলা যে, ৩৭০ ধারা বাতিল করা নিয়ে তোমাদের সমস্যা এত সমস্যা কেন? এটা একেবারেই আমাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। তোমাদের এ বিষয়ে ভাবতে হবে না৷’’

[ আরও পড়ুন: জেসিকা লাল কাণ্ডের ছায়া, স্যান্ডুইচ দিতে দেরি করায় গুলিবিদ্ধ ওয়েটার ]

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে গিয়েছে সাজিয়া ও দুই বিজেপি নেতার বিরোধিতার ভিডিও৷ যেখানে দেখা গিয়েছে, ট্যাক্সি থেকে নেমেই জমায়েতের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন তারা। বিক্ষোভরত পাক নাগরিকদের  চোখে চোখ রেখে পালটা প্রতিবাদ করেছেন৷ বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে সাজিয়া বলেন, ‘‘আমরা যেখানেই থাকি না কেন, আমাদের প্রতিবাদ করার অধিকার রয়েছে। একজন দেশবাসী হিসেবে, একজন ভারতীয় হিসেবে নিজের রাগকে শান্তিপূর্ণ ভাবে প্রকাশ করাটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। যে কোনও সময় যে কেউ আপনার দেশ ও প্রধা‌নমন্ত্রীকে অপমান করলে, আপনার মুখ খোলা উচিত। শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করলে, ভয় পাওয়ার কিছু নেই৷’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং