১২  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সেনেটরের বাড়িতে পার্সেল বোমা

Published by: Tanujit Das |    Posted: October 28, 2018 9:27 am|    Updated: October 28, 2018 9:27 am

Suspicious packages sent to Kamala Harris

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, বিদেশসচিব হিলারি ক্লিনটন, অভিনেতা রবার্ট ডি নিরো’র মতো বেছে বেছে ডেমোক্র‌্যাট নেতা-সমর্থকদের বাড়িতে বিস্ফোরক পাঠানোর জেরে সরগরম মার্কিন রাজনীতি। শুক্রবার এক ডোনাল্ড ট্রাম্প সমর্থককে গ্রেফতারও করেছে এফবিআই। তারপরও আইইডি বিস্ফোরক পাঠানোর বিরাম নেই। এবার একই রকম প্যাকেট এসেছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত সেনেটর কমলা হ্যারিস ও কোটিপতি ডেমোক্র‌্যাট টম স্টেয়ারের বাড়িতে। এই নিয়ে এমন ঘটনার সংখ্যা বেড়ে হল ১৪।

[‘কোনও শব্দ করা যেত না, ৪০ মাস নরকযন্ত্রণা ভোগ করেছি’]

আমেরিকার বিরোধী রাজনীতিতে কমলা হ্যারিস ‘উঠতি তারকা’। প্রথম মহিলা ভারতীয় বংশোদ্ভূত সেনেটর, ক্যালিফোর্নিয়ার প্রতিনিধি কমলা হ্যারিসকে অনেকে সম্ভাব্য ‘প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী’ বলেও মনে করেন। তাঁর ও টম স্টেয়ারের বাড়িতে পাঠানো প্যাকেটের সঙ্গে ওবামা, ক্লিনটনদের পাঠানো প্যাকেটের প্রচুর মিল রয়েছে। এছাড়াও সন্দেহজনক প্যাকেট এসেছে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার প্রাক্তন ডিরেক্টর জেমস ক্ল্যাপারের নিউ ইয়র্কের বাড়িতেও। এই সবকটি ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে বছর ছাপ্পান্নর সিজার সায়োক নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে এফবিআই। জানা গিয়েছে, খাম থেকে পাওয়া আঙুলের ছাপের সূত্র ধরেই সিজার সায়োকের নাম সামনে আসে। ওই ব্যক্তি ফ্লোরিডার বাসিন্দা। সিজার সায়োক আগে পিৎজা ডেলিভারির কাজ করত। পরে ফ্লোরিডার একটি পানশালায়ও কাজ করেছে সে। এফবিআই সূত্রে খবর, এই প্রথম বার নয়। অনেক আগেই অপরাধ জগতে হাতেখড়ি হয়েছে সিজারের। পুলিশ এবং এফবিআই সূত্রের খবর অনুযায়ী, এর আগেও কয়েকটি অপরাধমূলক কাজে নাম জড়িয়েছে সিজারের। টুইটারে ডেমোক্র‌্যাটদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

[রাজনৈতিক ডামাডোলে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী পদে রাজাপক্ষে, উদ্বিগ্ন দিল্লি  ]

 ঘটনার প্রেক্ষিতে মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস বলেন, “আমরা এই ধরনের ঘটনা বরদাস্ত করব না। বিশেষ করে এই ধরনের রাজনৈতিক হিংসা সহ্য করব না।” সিজার সায়োকের বিরুদ্ধে পাঁচদফা অভিযোগ আনা হয়েছে। দোষী সাব্যস্ত হলে তার ৫৮ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। এফবিআই ডিরেক্টর ক্রিস্টোফার রে জানান, বিস্ফোরকগুলি বিপজ্জনক। কোনও ভুয়া ঘটনা নয়। এগুলি সাধারণত আফগানিস্তানে ব্যবহার হয়। ভার্জিনিয়ায় সংস্থার ফরেনসিক ল্যাবরেটরিতে সেগুলির পরীক্ষা হচ্ছে। তবে এই ধরনের আরও বিস্ফোরক পাঠানো হয়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা এফবিআই প্রধানের।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে