৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘নমস্তে…স্বাগত…এবং দুঃখিত’! ‘হাউডি মোদি’ প্রসঙ্গে এই মন্তব্য আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পদপ্রার্থী, ভারতীয় বংশোদ্ভূত তুলসী গাবার্ড।

[আরও পড়ুন: যুদ্ধের সম্ভাবনা উসকে শ্রীনগরের কাছেই বায়ুসেনা ঘাঁটি বানাচ্ছে পাকিস্তান]

২২ সেপ্টেম্বর, টেক্সাসের হিউস্টনে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ‘হাউডি মোদি’। শেয়ার্ড ড্রিমস, ব্রাইট ফিউচার’ জনসভায় একমঞ্চে উপস্থিত থাকতে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু পূর্বনির্ধারিত কিছু কাজ পড়ে যাওয়ায় ওইদিন মোদির জনসভায় থাকতে পারবেন না তুলসী গাবার্ড। তাই আগেভাগেই কাজটি সেরে ফেললেন তিনি। মোদির উদ্দেশে একটি ভিডিও-বার্তায় গাবার্ড বলেছেন, “নমস্তে! আমেরিকায় তাঁর সাম্প্রতিকতম সফরে নরেন্দ্র মোদিকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি। কিন্তু একইসঙ্গে আমি দুঃখিত কারণ মোদির জনসভায় আমি উপস্থিত থাকতে পারব না। ওইসময় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রচার সংক্রান্ত পূর্বনির্ধারিত কাজ রয়েছে। কিন্তু আমেরিকার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রচুর প্রবাসী ভারতীয় আসছেন। ‘হাউডি মোদি’ জনসভা উপলক্ষে সকলকে একত্রিত হতে দেখে আমি অভিভূত।”

মার্কিন ডেমোক্রেট ৩৮ বছর বয়সি গাবার্ড এদিন আরও বলেন, “বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশ ভারত, এশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় আমেরিকার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জোটসঙ্গীও বটে। কাজেই যে যে বিষয়গুলো আমাদের দুই দেশ ছাড়াও আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রভাব ফেলে, যেমন জলবায়ু পরিবর্তন, পরমাণু যুদ্ধ নিয়ন্ত্রণ, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি প্রভৃতি, সেই সেই বিষয়ে আমাদের একজোট হয়ে কাজ করতে হবে।” নিজের বিশ্লেষণে ‘বসুধৈব কুটুম্বকম’-এর বার্তা দিয়ে গাবার্ড জানিয়েছেন, “সমৃদ্ধি, সম্পত্তি, সুযোগ এবং ভারসাম্য ছাড়াও বিজ্ঞান, স্বাস্থ্য, পরিবেশ, নিরাপত্তা এবং সন্ত্রাসদমনের মতো বিষয়ে ভারত এবং আমেরিকা যেভাবে একজোট হয়ে কাজ করছে, যেভাবে দু’দেশের মধ্যে সুদৃঢ় এবং স্থায়ী সম্পর্ক তৈরি হয়েছে, তা বিশ্বকে আদপে ‘বসুধৈব কুটুম্বকম’-এর বার্তাই দেয়।” প্রসঙ্গত, এর আগেও টুইট করে গাবার্ড জানিয়েছিলেন, ‘হাউডি মোদি’ সভায় তিনি উপস্থিত থাকতে পারবেন না ঠিকই কিন্তু আমেরিকা সফরে মোদির সঙ্গে দেখা করতে তিনি চান। আর সেই সাক্ষাতে বিশ্বের প্রাচীনতম এবং বৃহত্তম দুই গণতন্ত্রের দেশের মধ্যে ইতিমধ্যেই যে সুদৃঢ় পারস্পরিক সম্পর্ক রয়েছে, তাকে কীভাবে আরও পোক্ত, আরও স্থায়ী করা যায়, তা নিয়ে মোদির সঙ্গে বিশদে কথা বলতে চান গাবার্ড।

এদিকে, রবিবারের ‘হাউডি মোদি’ জনসভা ঘিরে সাজ সাজ রব আমেরিকাজুড়ে। ইতিমধ্যেই ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিজেদের নাম নথিবদ্ধ করে ফেলেছেন। টেক্সাস ইন্ডিয়া ফোরামোর তরফে আয়োজিত ওই সভায় একমঞ্চে উপস্থিত থাকবেন নরেন্দ্র মোদি এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প। অনুষ্ঠান চলবে তিন ঘণ্টা ধরে। ভারতীয় সময় রাত ৮.৩০টা থেকে শুরু হয়ে চলবে রাত ১১.৩০টা পর্যন্ত।

[আরও পড়ুন: ক্যামেরার সামনেই বেমালুম মিথ্যা বলে বিতর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং