BREAKING NEWS

৮ শ্রাবণ  ১৪২৮  রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সমাজের প্রতি অবদানের জন্য বিশেষ সম্মান, গান্ধীজির স্মৃতিতে নয়া কয়েন আনতে চলেছে ব্রিটেন

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 2, 2020 7:18 pm|    Updated: August 2, 2020 7:40 pm

UK Plans Coin In Mahatma Gandhi's Honour

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌  দেশের স্বাধীনতার জন্য যাঁদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন, তাঁদের কাছ থেকেই এবার অনন্য সম্মান পেতে চলেছেন মহাত্মা গান্ধী (Mahatma Gandhi)৷ এবার ‘‌‌জাতির জনক’-এর‌  স্মৃতিতে নয়া কয়েন তৈরির কথা ভাবছে ব্রিটেন৷ সমাজের প্রতি কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয় এবং অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনদের অবদানকে সম্মান জানাতে এই স্মারক মুদ্রার প্রচলন করার পরিকল্পনা। ইতিমধ্যে ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক (Rishi Sunak) একটি চিঠিতে রয়্যাল মিন্ট অ্যাডভাইজরি কমিটিকে (Royal Mint Advisory Committee) গান্ধীজির সম্মানে এই বিশেষ কয়েন তৈরি করতে অনুরোধ করেছেন। শনিবার গভীর রাতে ই-মেল মারফত এমনটাই জানিয়েছে ব্রিটেনের ট্রেজারি। সেখানে বলা হয়, ‌‘‘‌‌আরএমএসি বর্তমানে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতিতে একটি মুদ্রা প্রচলনের কথা বিবেচনা করছে।’‌’‌

[আরও পড়ুন: লাদাখ ইস্যুতে আগ্রাসী চিনকে বার্তা, ভারতের পাশে দাঁড়াল মার্কিন কংগ্রেস]

গান্ধীজি সারা জীবন অহিংসার পক্ষে ছিলেন। ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামেও তিনি নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। কিন্তু কখনই অহিংসার পথ ছাড়েননি। মহাত্মা গান্ধীর অহিংসার বার্তাকে মাথায় রেখে প্রতি বছর ২ অক্টোবর আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবস পালন করা হয়।ভারতের স্বাধীনতার কয়েকমাস পরেই তাঁকে হত্যা করা হয়। ১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি তিনি আততায়ীর হাতে প্রাণ হারান। তবে গান্ধীজির প্রথম আন্দোলন ছিল দক্ষিণ আফ্রিকায়। সেখানে কৃষাঙ্গদের অধিকারের জন্য লড়েছিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন:  পাঞ্জাব দিয়ে পাকিস্তানের অস্ত্র ও মাদক পাচারের ছক বানচাল, ধৃত BSF কনস্টেবল-সহ ৩]

আর সম্প্রতি গোটা বিশ্ব ফের একবার কৃষ্ণাঙ্গদের উপর অত্যাচারের সাক্ষী থেকেছিল। গত মে মাসে আমেরিকায় মিনিয়াপোলিসে পুলিশ হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের ‘খুনে’র পর শুরু হওয়া আন্দোলনের কারণে বিশ্বের অনেক স্থানেই এখন ইতিহাস, ঔপনিবেশিকতা ও বর্ণবাদ সংক্রান্ত নানান বিষয় নিয়ে পুনর্মূল্যায়ন চলছে। সেই ধারাবাহিকতায় ব্রিটেনের কয়েকটি প্রতিষ্ঠানও তাদের অতীত পর্যালোচনা করে দেখছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স। ব্রিটেনের অনেক প্রতিষ্ঠান এখন কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয় ও সংখ্যালঘু অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর (BAME) সহায়তায় এবং বর্ণবৈচিত্রের সমর্থনে নানা পদক্ষেপ করছে। আরএমএসি-কে লেখা চিঠিতে সুনাক বলেছেন, বিএএমই সম্প্রদায়গুলির সদস্যরা যে অনবদ্য অবদান রেখেছেন, ব্রিটেনের মুদ্রাগুলিতে তার স্বীকৃতি থাকা উচিত।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement