BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভবিষ্যতে প্রতিদিন হাজার হাজার শিশুর মৃত্যুর জন্য দায়ী থাকবে করোনা, সতর্ক করল UNICEF

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 13, 2020 9:19 pm|    Updated: May 13, 2020 9:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: খাতায়-কলমে দেখতে গেলে শিশু শরীরে সেভাবে থাবা বসায়নি করোনা। এই মারণ ভাইরাস অনেক বেশি প্রভাব ফেলেছে প্রৌঢ় ও বৃদ্ধদের দেহে। কিন্তু এ পরিসংখ্যান দেখে এখনই স্বস্তির নিশ্বাস ফেলা যাবে না। কারণ ভবিষ্যতে রোজ হাজার হাজার শিশুর মৃত্যুর জন্য দায়ী থাকবে এই নোভেল করোনাই। সতর্ক করল খোদ ইউনিসেফ।

করোনা মহামারি চিকিৎসা ক্ষেত্রে বিরাট প্রভাব পড়েছে। স্বাস্থ্যপরিকাঠামোকে ধাক্কা দিয়েছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে এই ভাইরাস। যা ভবিষ্যতে শিশুদের চিকিৎসায় বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। আর ঠিক এই কারণেই আগামী ছ’মাস প্রতিদিনি অন্তত অতিরিক্ত ৬ হাজার শিশু প্রাণ হারাতে পারে বলেই মনে করছে ইউনিসেফ। ল্যানসেট গ্লোবাল হেল্থ জার্নালে (Lancet Global Health) প্রকাশিত রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই এমন আশঙ্কা করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘দুই দশকে ৫টা মহামারি ছড়িয়েছে চিন’, বিস্ফোরক অভিযোগ মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টার]

ইউনিসেফের কথায়, করোনার জেরে প্রায় সব দেশেরই সাধারণ স্বাস্থ্য পরিষেবায় ব্যাঘাত ঘটছে। করোনা মোকাবিলাতেই নিজেদের উৎসর্গ করেছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। আর তাই শিশুদেরও চিকিৎসা পেতে সমস্যায় পড়তে হবে। ফলে ৬ মাসের মধ্যে ১১৮টি দেশের ২৫ লক্ষ শিশু প্রাণ হারালে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। পাঁচ বছর বা তার কম বয়সের শিশুদেরই মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ইউনিসেফ আরও জানায়, শিশুমৃত্যুর সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়বে অন্তঃসত্ত্বার মৃত্যুও। ছয় মাসে ১১৮টি দেশের নতুন করে ৫৬ হাজার ৭০০ জন গর্ভবতী প্রাণ হারাতে পারেন। ইউনিসেফের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর বলেন, “আগামী ছয় মাসে পাঁচ বছরের কম বয়সের শিশুর মৃত্যুর হার যেভাবে বাড়বে, তা গত কয়েক দশকে দেখা যায়নি। কিন্তু করোনার জন্য সন্তান ও মায়ের মৃত্যু এভাবে হাত গুটিয়ে আমরা মেনে নেব না।” বিজ্ঞানকে ভর করেই ঘুরে দাঁড়াতে হবে বলে মত তাঁর।

[আরও পড়ুন: ‘চিকিৎসার মাধ্যমে কমানো যাচ্ছে করোনার ভয়াবহতা’, আশার কথা শোনাল WHO]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement