BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

করোনা সংক্রমণে চিন, ইটালিকে হারাল আমেরিকা, লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 27, 2020 9:16 am|    Updated: July 3, 2020 6:04 pm

US has highest number of CoronaVirus effeted,Surpasses China, Italy

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সংক্রমণে চিন ও ইতালিতে পিছনে ফেলে ক্রমশ এগিয়ে চলেছে আমেরিকা। গত ২৪ ঘণ্টায় আমেরিকায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ২৩৩। আর আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮২ হাজার। এর পরেও শোনা যায়, ইস্টার থেকে বাজার খুলতে চান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যেখানে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে সেখানে ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে আমেরিকাবাসীর মনে।

‘হু’-এর হুঁশিয়ারি ছিলই, সেই মত আমেরিকায় লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ লক্ষেরও বেশি। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৩ হাজার। চিনের পর করোনা যেন অভিশাপ হয়ে নেমে এসেছে ইতালি ও আমেরিকার কাছে, ফলে চিনকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে আমেরিকায়।নিউইয়র্কের গভর্নর অন্দ্রিউ কৌউমু জানান,”করোনায় আক্রান্ত হয়ে যে সকল রোগীরা হাসপাতালে ভরতি হচ্ছেন তাদের মধ্যে অধিকাংশ শ্বাসকষ্টে ভুগছেন। ফলে হাসপাতালগুলিতে ভন্টিলেটরের অভাব দেখা দিয়েছে। রোগীদের বাঁচাতে নিউ ইয়র্ক হাসপাতাল, কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় মেডিক্যালে দুজন করে রোগীকে একটি ভেন্টিলেটরের সাহায্যে চিকিৎসা করা হচ্ছে।” অন্যদিকে ২০,৩০,৪০ করে স্রোতের বেগে করোনায় আক্রান্ত রোগীরা লন্ডনের হাসপাতালে ভরতি হতে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে অনেকেরই শারীরিক অবস্থা বেশ জটিল। লন্ডনের চিকিৎসকদের কথায়,”যা পরিস্থিতি তাতে হাসপাতালের সবকটি বেড ভরতি হতে খুব বেশি সময় লাগবে না। তখন আক্রান্তরা এলে তাদের ফিরিয়ে দেওয়া ছাড়া কোনও উপায় থাকবে না।” লন্ডনের মত প্রথম সারির একটি শহরের চিকিৎসকরা এই মন্তব্য করায় চিন্তার ভাঁজ পড়েছে বিশ্বের তাবড় চিকিৎসকদের কপালে। সূত্রের খবর, লন্ডনের একটি প্রদর্শনীশালাকে অস্থায়ী হাসপাতালে পরিণত করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন:করোনা LIVE UPDATE: আক্রান্তের নিরিখে চিন ও ইটালিকে টপকে গেল আমেরিকা]

আমেরিকার এই পরিস্থিতি নিয়ে আজ চিনের প্রেসিডেন্ট শিং জিন পিং-এর সঙ্গে ফোনে আলোচনার সম্ভাবনা আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে ট্রাম্প জানান,”চিনের সঙ্গে আমেরিকায় যথেষ্ট ভাল সম্পর্ক। আমরা নিজেদেরে মধ্যে কথা বলে এই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করব।” যদিও এই মারণ ভাইরাসের উৎস স্থল কোথায়, তা নিয়ে কয়েকদিন ধরেই এই দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে কাদা ছোঁড়াছুড়ি চলেছিল গোটা বিশ্বের সামনে।

[আরও পড়ুন:শুভেন্দু অধিকারী ও আবদুল মান্নানের উদ্যোগ, বাড়ি ফিরলেন আটকে পড়া শ্রমিকরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে