২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

H-1B ভিসা নিষেধাজ্ঞায় স্থগিতাদেশ মার্কিন আদালতের, স্বস্তিতে হাজার হাজার ভারতীয়

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: October 2, 2020 2:20 pm|    Updated: October 2, 2020 2:20 pm

US Judge Blocks H-1B Visa Ban, Says Trump

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এইচ ওয়ান বি (H1B) ভিসার উপর ট্রাম্প প্রশাসনের সাময়িক নিষেধাজ্ঞার নির্দেশে স্থগিতাদেশ জারি করল মার্কিন ফেডারেল কোর্ট। ভিসা নির্দেশিকা কার্যকরী না করার সিদ্ধান্তে স্বস্তি পেয়েছেন আমেরিকায় কর্মরত ভারতের হাজার হাজার তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী।

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত আমাজনের প্রায় ২০ হাজার কর্মী, তবে ফুলেফেঁপে উঠেছে বেজোসের ভাঁড়ার]

বৃহস্পতিবার ভিসা নিষেধাজ্ঞা তথা ওয়ার্ক পার্মিট সংক্রান্ত এই মামলায় রায় দেন ক্যালিফোর্নিয়ার ডিস্ট্রিক্ট জজ জেফরি হোয়াইট। জানা গিয়েছে, H1B ভিসায় নিষেধাজ্ঞা জারির ট্রাম্প প্রশাসনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করে বেশ কয়েকটি মার্কিন প্রতিষ্ঠান। ওই মামলার শুনানি শেষে ভিসায় নিষেধাজ্ঞা বলবৎ না করার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। এর ফলে আমেরিকায় H1B ভিসাধারী ভারতীয় কর্মীরা অনেকটাই স্বস্তি পেয়েছেন।

আমেরিকায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে মাথায় রেখে ভূমিপুত্রদের চাকরির অধিকার সুরক্ষিত করতে গত জুনে এই ভিসা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয় ট্রাম্প প্রশাসন। তারপরই সরকারি নির্দেশিকায় স্বাক্ষর করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ফলে ভিসা সম্পর্কিত নয়া নিয়ম বলবৎ হয় ২৪ জুন থেকেই। নয়া নিয়ম অনুযায়ী, মার্কিন তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি ভারতীয় ও চিনা চাকুরিপ্রার্থীদের আর নিয়োগ করতে পারবে না। যাঁরা ইতিমধ্যেই কর্মরত তাঁদের চাকরিও প্রশ্নের মুখে। প্রতি বছর মার্কিন সংস্থাগুলি দশ হাজারেরও বেশি ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের নিয়োগ করে। বেশ কিছুদিন আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিলেন লকডাউনের জেরে যেসব আমেরিকাবাসী চাকরি হারিয়েছেন, তাঁদের কথা ভেবে সাময়িকভাবে H-1B ভিসা বাতিল করতে পারেন তিনি। তারপর থেকেই আশঙ্কায় দিন কাটছিল আমেরিকায় চাকরিজীবী ভারতীয়দের। আশঙ্কা সত্যি করে গত ২৩ জুন ট্রাম্প প্রশাসন ঘোষণা করে, আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত আমেরিকা কোনও বিদেশিকে H-1B, H-2B এবং L ভিসা দেবে না। আগামিদিনে শুধুমাত্র অতি দক্ষ এবং খুব বেশি বেতনের কর্মীদেরই আমেরিকায় ওয়ার্ক ভিসা দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। তবে ভবিষ্যতে যাতে আমেরিকায় কম মাইনের চাকরিতে বিদেশিরা কাজ করতে না পারেন, সেদিকে সতর্ক নজর রাখতেই প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত বলে অনুমান অনেকের।

[আরও পড়ুন: ‘আমিও গাঁজা খেতাম’, নির্বাচনী বিতর্কসভায় অকপট স্বীকারোক্তি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে