২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘দূষণ ও পরিচ্ছন্নতার বিন্দুমাত্র বোধ নেই ভারতের’, তোপ ট্রাম্পের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 6, 2019 1:56 pm|    Updated: June 6, 2019 2:37 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ভারতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। চাঁচাছোলা ভাষায় তিনি বলেন, ‘দূষণ ও পরিচ্ছন্নতার বিন্দুমাত্র বোধ নেই ভারতের।’ বায়ুদূষণ নিয়ে ‘ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন’-এর প্রকাশিত একটি রিপোর্টের প্রেক্ষিতে এই মন্তব্য করেন ট্রাম্প। 

[আরও পড়ুন: ‘সিক্রেট কোড’ হ্যাক করেই বাজিমাত, বাংলাদেশে এটিএম জালিয়াতিতে নয়া তথ্য]

রাশিয়া থেকে এস-৪০০ মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম কেনা নিয়ে নয়াদিল্লির সঙ্গে বিবাদ বাড়ছে ওয়াশিংটনের। কয়েকদিন আগেই বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ভারতকে দেওয়া বিশেষ মর্যাদাও প্রত্যাহার করে নিয়েছে আমেরিকা। এহেন পরিস্থিতিতে ফের দূষণ ও পরিচ্ছন্নতা নিয়ে ভারতকে আক্রমণ করেছেন ট্রাম্প। সদ্য বায়ুদূষণ নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে ‘ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন’ (ডব্লিউএইচও)। সেখানে বলা হয়েছে, আমেরিকার তুলনায় ভারত, রাশিয়া ও চিনে বাতাসে দূষণের পরিমাণ অনেক বেশি। তারপরই এই তিন দেশকে একহাত নিয়েছেন ট্রাম্প। বুধবার তিনি সাফ বলেন, “এরা কোনওদিন  প্রকৃতির প্রতি নিজেদের দায়িত্ব পালন করেনি। ভারত, রাশিয়া ও চিনের জল পরিষ্কার নয়, বতাস দূষিত৷” একই সঙ্গে ব্রিটিশ যুবরাজ চার্লসের ভূয়সী প্রশংসা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। জলবায়ু দূষণ রুখতে ব্রিটিশ যুবরাজের পদক্ষেপ ও নিষ্ঠা দেখার মতো বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জুন মাসে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ায় আমেরিকা। ওই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, চুক্তির শর্তে ভারত ও চিনের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে। এই চুক্তি আমেরিকার পক্ষে প্রতিকূল। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে এই চুক্তি নিয়ে সহমত হয়েছিল ১৯০টিরও বেশি দেশ। ভারতকে দূষণ নিয়ে পাঠ দিলেও পরিসংখ্যান বলেছে আমেরিকার বাতাসে ২০১৮ সালে কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ বেড়েছে ৩.৪ শতাংশ। বিশ্লেষকদের মতে, পরিবেশের চাইতেও রাজনৈতিক কারণেই এই মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।           

[আরও পড়ুন: অবশেষে পুলিশের জালে টেক্সাসের কুখ্যাত ‘ডাকাত রানি’ চাকা]              

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement